ওজন কমাতে জাপানি পানি থেরাপি

0
41
জাপানি পানি থেরাপি

আমাদের দেহের ৫০-৬৫ শতাংশই পানি। ফলে মানুষের বেঁচে থাকার জন্য সবচেয়ে মৌলিক উপাদানগুলোর একটি পানি।

প্রায়ই পরামর্শ দেওয়া হয়ে থাকে প্রতিদিন একজন প্রাপ্তবয়স্ক মানুষকে অন্তত ৮ থেকে ১০ গ্লাস পানি পান করতে হবে। যাতে শরীর থেকে সব বর্জ্য বেরিয়ে যেতে পারে এবং শরীর যথাযথ ভাবে তার কার্যক্রম চালিয়ে যেতে পারে।

অনেক পুষ্টিবিদ পরামর্শ দিয়ে থাকেন প্রতিদিন সকালে ঘুম থেকে উঠে এক গ্লাস হালকা গরম পানিতে লেবুর রস বা মধু মিশিয়ে খেতে। কারণ এর ফলে হজম প্রক্রিয়া শক্তিশালি হয় এবং সার্বিক স্বাস্থ্যের উপকার হয়।

জাপানের মানুষেরা পানি পান সম্পর্কিত এই উপদেশগুলো গুরুত্বের সঙ্গে বিবেচনায় নিয়ে মেনে চলেন। তারা বিশেষ কিছু পানি থেরাপিরও চর্চা করেন যেগুলো ওজন কমানো এবং ফিটনেসের জন্য উপকারি। আসলে একটি সহজ-সরল থেরাপিও গুরুত্বের সঙ্গে বিবেচনায় নিয়ে চর্চা করলে স্বাস্থ্যের সমুহ উপকার হয়।

আসুন জেনে নেওয়া যাক জাপানি এই পানি থেরাপি কী।
বেশিরভাগ অসুস্থাতাই শুরু হয় দুর্বল পাকস্থলী থেকে।

জাপানি পানি থেরাপি আপনার পাকস্থলী পরিষ্কার করা এবং আপনার হজম প্রক্রিয়াকে শক্তিশালী করতে কাজ করবে। জাপানের ঐতিহ্যবাহী চিকিৎসা ব্যবস্থায় সকালে ঘুম থেকে ওঠার পরপরই পানি পান করে দিন শুরু করতে বলা হয়।

সকালে দিনশুরুর এই সময়টুকুকে বলা হয় ‘সোনালি সময়’। এই সময়ে পান করলে তা হজম প্রক্রিয়াকে বাধাহীন করার পাশাপাশি নানা ধরনের স্বাস্থ্য সমস্যা দূর করতে সহায়ক হয়।

জাপানি পানি থেরাপি-তে কী করতে বলা হয়? জাপানি পানি থেরাপি অনুসারে অবশ্যই পাঁচটি কাজ করতে হবে আপনাকে:

১. সকালে ঘুম থেকে ওঠার পরপরই খালি পেটে চার থেকে ছয় গ্লাস পানি পান করতে হবে। প্রতিবার ১৬০-২০০ মিলিলিটার পানি পান করতে হবে। পানিটা হতে হালকা গরম। আর সাথে লেবুর রসও মিশিয়ে নিতে পারেন।

২. পানি পান করার পর দাঁত মাজতে হবে। পানি পান করার অন্তত ৪৫ মিনিট পর খাবার খেতে হবে। এরপর রুটিন মাফিক দিনের অন্যান্য কাজ করতে হবে।

আরও পড়ুনঃ   মস্তিষ্কের গুরুত্বপূর্ণ ৮ ব্যায়াম জেনে নিন

৩. আর দিনের প্রতিবেলা খাবার খাওয়ার পরবর্তী অন্তত দুইঘণ্টা আর কিছু খাওয়া পান করা যাবে না।

৪. বয়স্কদের মধ্যে যারা কোনো গুরুতর স্বাস্থ্য সমস্যায় ভুগছেন বা যারা মাত্র এই থেরাপি শুরু করেছেন তারা প্রথমদিকে প্রতিদিন মাত্র এক গ্লাস পানির বেশি পানি পান করবেন না। এরপর আস্তে আস্তে গ্লাসের সংখ্যা বাড়াতে হবে।

৫. আপনি একদমেই চার গ্লাস পানি পান করতে না পারেন তাহলে একটু বিরতি নিয়ে প্রতি গ্লাস পান করুন।

আরও কিছু গুরুত্বপূর্ণ পরামর্শ দেয় জাপানি পানি থেরাপি
প্রতিদিন অন্তত ১ ঘন্টা হাঁটাহাঁটি করুন। এতে আপনার হজম প্রক্রিয়া আরো শক্তিশালী হবে।
প্রতিদিন রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে হালকা গরম পানিতে লবণ মিশিয়ে অন্তত ৪-৫ বার গড়গড়া করুন।
দাঁড়ানোর অবস্থায় খাবেন না বা পানি পান করবেন না। কেননা এতে হজম প্রক্রিয়ায় সমস্যা দেখা দেয়।
খাবার গেলার আগে ভালোভাবে চিবিয়ে নিন। এতে সহজে হজম হবে।

জাপানি পানি থেরাপির উপকারিতা
জাপানি পানি থেরাপি মেনে চললে দৈহিক ও মানসিক চাপ বা অবসাদ থেকে মুক্তি মিলবে। ওজন কমবে। এবং হজম পক্রিয়া শক্তিশালী হবে। সারাদিনব্যাপী আপনাকে শক্তিশালী রাখবে। সুস্থ দেহ সুস্থ মনও তৈরি করবে। হাজার বছরের পুরোনো চিকিৎসা ব্যবস্থা ভারতীয় আয়ুর্বেদ শাস্ত্রও সকালে ঘুম থেকে ওঠার পর সবার আগে পানি পান করারই পরামর্শ দিয়ে থাকে। কারণ এতে স্বাস্থ্য ভালো থাকে।

সূত্র: এনডিটিভি

দ্রুত ওজন কমানোর কার্যকরী টোটকা

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here