কেন নারীর ওজন বাড়ে!

0
77
নারীর ওজন

কেন আপনি হারাচ্ছেন সুন্দর স্লিম ফিগারটি! যা কয়েক দিন আগেও ছিল মেদহীন টিপটপ শরীর। কিন্তু হঠাৎ করেই বাড়তে শুরু করেছে ওজন! শরীরের নানা জায়গায় জমতে শুরু করেছে অবাঞ্চিত মেদ। বাড়তি এই মেদ কমাতে চেষ্টা করে যাচ্ছেন কয়েক দিন ধরেই। কিন্তু কিছুতেই কিছু হচ্ছে না ?
বিশেষজ্ঞদের মতে, নারীর শরীরের ওজন বেড়ে যাওয়ার পিছনে কিছু রহস্যজনক কারণ রয়েছে। সেই কারণগুলো জানলেই কমানো সম্ভব আপনার বাড়তি ওজন।

আসুন জেনে নিই ওজন বাড়ার সেই কারণগুলো কী কী…

হরমোনজনিত সমস্যা
শরীরের অন্তঃস্রাবী ব্যবস্থা সঠিকভাবে কাজ না করলে ওজন বাড়তে পারে। এরমধ্যে তিনটি প্রচলিত সমস্যা হল হাইপোথাইরোইডিজম। থাইরয়েড গ্রন্থি সঠিকভাবে কাজ না করলে শরীরের শক্তি খরচ কমে যায় তবে শক্তি সঞ্চয়ের মাত্রা একই থাকে। ফলে ওজন বাড়ে।

পলিসিস্টিক ওভারি সিনড্রোম (পিসিওএস) বা অনিয়মিত ঋতুস্রাব হলে রক্তে গ্লুকোজের প্রবাহ দ্রুত বেড়ে যায়, ফলে ওজন বাড়ে। আর কুশিং’স সিনড্রোমের কারণে ওজন বাড়ে বাড়তি কর্টিসলের কারণে।

ওষুধের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া
বিভিন্ন গর্ভনিরোধক ও দুশ্চিন্তা দূর করা ওষুধ, হাঁপানী, একজিমা রোগের চিকিৎসায় ব্যবহৃত স্টেরোয়েড ইত্যাদির কারণে ওজন বাড়ার আশঙ্কা রয়েছে শতভাগ। তাই এই ধরনের ওষুধ সেবনের আগে ও পরে চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়া দরকার।

মানসিক চাপ
মানসিক চাপগ্রস্ত অনেকেই আবেগতাড়িত খাদক হয়ে ওঠেন। বিভিন্ন চিনিযুক্ত খাবার ও কার্বোনেইটেড ঠাণ্ডা পানীয় বেশি গ্রহণ করেন। দুশ্চিন্তাগ্রস্ত থাকলে ওজন বেড়ে যাওয়ার অন্যতম বড় কারণ এটি।এছাড়াও এই অবস্থায় শরীরের হরমোনের ভারসাম্য নষ্ট হয়ে যায় এবং এটিও চর্বি জমার কারণ ।

খাবারে অ্যালার্জি
যে খাবারে অ্যালার্জি আছে তা নিয়মিত খেলে ওজন বাড়তে পারে। গবেষণায় দেখা গেছে প্রতি ১০ জনের মধ্যে একজন ওজন কমানোর সর্বাত্বক চেষ্টা করার পরেও শুধু অ্যালার্জির জন্যই বাড়ছে ওজন। সাধারণত সয়া, ময়াদা দিয়ে তৈরি আঠা, ল্যাক্টোজ, ডিম, বাদাম ইত্যাদির মধ্যে। অ্যালার্জি থাকে বেশি মাত্রায়।

আরও পড়ুনঃ   গাইনি ডাক্তারের কাছে যে বিষয়গুলো কখনোই লুকাবেন না

এবার থেকে তাই ওজন বাড়ার কারণে দুঃচিন্তা না করে যে কারণে ওজন বাড়ে বা প্রতিরোধের চেষ্টা করুন

LEAVE A REPLY