পাকা তালের উপকারিতা

0
317
তালের উপকারিতা

তাল কচি ও পাকা দুই অবস্থায়ই খাওয়া যায়। তাল যেমন নানাভাবে খাওয়া যায়, তেমনি তালের পুষ্টিগুণও অনেক।

তাল শাঁসের পুষ্টিগুণ ও উপকারিতা

কী আছে

পাকা তালের প্রতি ১০০ গ্রাম খাদ্যযোগ্য অংশে রয়েছে-

খাদ্যশক্তি ৮৭ কিলোক্যালরি

জলীয় অংশ ৭৭.৫ গ্রাম

আমিষ .৮ গ্রাম

চর্বি .১ গ্রাম

শর্করা ১০.৯ গ্রাম

খাদ্য আঁশ ১ গ্রাম

ক্যালসিয়াম ২৭ মিলিগ্রাম

ফসফরাস ৩০ মিলিগ্রাম

আয়রন ১ মিলিগ্রাম

থায়ামিন .০৪ মিলিগ্রাম

রিবোফ্লাভিন .০২ মিলিগ্রাম

নিয়াসিন .৩ মিলিগ্রাম

ভিটামিন সি ৫ মিলিগ্রাম

তাল কিভাবে খাবেন

তালসত্ত্ব : তালের রস ও চিনি দিয়ে বানানো হয় তালসত্ত্ব।

তালের জুস : তালের রস, দুধ, চিনি দিয়ে জুস বানানো যায়। ডায়াবেটিক ও হৃদরোগীরা চিনি না দিয়ে খেতে পারবেন।

তালের পিঠা : তালের গোলার সঙ্গে ডিম, চালের গুঁড়া, গুড় বা চিনি এবং কখনো নারিকেল দিয়ে তালের পিঠা বানানো হয়।

তালের কেক : কেকের সব উপকরণের সঙ্গে তালের রস মেশানো হয়। তালের কেকের মধ্যে চিনি কম এবং ডিমের সাদা অংশ ব্যবহার করলে ডায়াবেটিক ও হৃদরোগীদের জন্য ভালো খাবার হতে পারে। কাঁচা তালের রসের বরফিও তৈরি করা হয়। শুধু তালের শাঁস আলাদাভাবেও খাওয়া যায়।

উপকারিতা

* তাল অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট গুণসমৃদ্ধ হওয়ায় ক্যান্সার প্রতিরোধে সক্ষম। এ ছাড়া স্বাস্থ্য রক্ষায়ও তাল ভূমিকা রাখে। স্মৃতিশক্তি ভালো রাখে।

* তাল ভিটামিন বি-এর আধার। তাই ভিটামিন বি-এর অভাবজনিত রোগ প্রতিরোধে তাল ভূমিকা রাখে।

* তালে প্রচুর ক্যালসিয়াম ও ফসফরাস আছে, যা দাঁত ও হাড়ের ক্ষয় প্রতিরোধে সহায়ক।

* কোষ্ঠকাঠিন্য ও অন্ত্রের রোগ ভালো করতে তাল ভূমিকা রাখে।

কারা খাবেন না

* যাঁরা উচ্চ রক্তচাপে ভুগছেন তাঁরা ডিমের কুসুম ও দুধ থাকে এমন তালের খাবার খাবেন না।

* যাঁদের ডায়াবেটিস কিংবা কোলেস্টেরল বেশি তাঁরা তালের পিঠা খাবেন না।

আখতার নাহার আলো

প্রধান পুষ্টি কর্মকর্তা ও বিভাগীয় প্রধান ইব্রাহিম মেমোরিয়াল হাসপাতাল

আরও পড়ুনঃ   আসুন জেনে নেই নিমের কিছু ব্যবহারিক উপকারিতা-

বিঃ দ্রঃ গুরুত্বপূর্ণ হেলথ নিউজ ,টিপস ,তথ্য এবং মজার মজার রেসিপি নিয়মিত আপনার ফেসবুক টাইমলাইনে পেতে লাইক দিন আমাদের ফ্যান পেজ বিডি হেলথ নিউজ

LEAVE A REPLY