প্রজননক্ষমতা বাড়ায় যেসব খাবার

0
প্রজননক্ষমতা

স্বাস্থ্যকর খাবার খাওয়া কেবল শরীরের জন্যই উপকারী নয়, এটি প্রজননক্ষমতা বাড়াতেও সাহায্য করে। প্রোটিন, প্রয়োজনীয় চর্বি, ভিটামিন ইত্যাদি প্রজননক্ষমতা বাড়ায়। স্বাস্থ্যবিষয়ক ওয়েবসাইট হেলথ ডাইজেস্টে জানানো হয়েছে এসব খাবারগুলোর নাম।

নারীর জন্য

১. আয়রন-সমৃদ্ধ খাবার

আয়রন-সমৃদ্ধ খাবার যেমন মুরগি, স্যামন মাছ অথবা লাল মাংস নারীকে উর্বর করে তোলে।

২. কাঁচা বাদাম ও বীজ

কাঠবাদাম, কুমড়া বীজ, তিলের বীজ, ওয়ালনাটের মধ্যে রয়েছে ওমেগা তিন ফ্যাটি এসিড। এতে আরো আছে আয়রন, জিংক, ভিটামিন ই। এগুলো প্রজননে সাহায্য করে।

৩. গাঢ় সবুজ শাকসবজি

গাঢ় সবুজ শাকসবজিতে ভিটামিন, মিনারেল, ভিটামিন বি৬ উচ্চ পরিমাণে পাওয়া যায়। এগুলো প্রজননসহায়ক হরমোন তৈরি করে ও প্রজননস্বাস্থ্যকে ভালো করে। গাঢ় সবুজ শাকসবজি যেমন পালং শাক, বরবটি ইত্যাদি।

৪. ঠান্ডা পানির মাছ

সারডাইন, স্যামন, ম্যাকরেল এগুলোর মধ্যে রয়েছে ওমেগা তিন ফ্যাটি এসিড। এই ধরনের খাবারগুলো সপ্তাহে অন্তত তিনবার খেতে পারেন। এ ছাড়া চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়ে মাছের তেলের সাপ্লিমেন্টও খেতে পারেন।

৫. ডিম

ডিমে রয়েছে উচ্চ পরিমাণ প্রোটিন। এটি প্রজননক্ষমতা বাড়াতে খুব ভালো কাজ করে।

পুরুষের জন্য

১. কুমড়ার বীজ

ছেলেদের প্রজননের জন্য জিংক খুব প্রয়োজনীয় একটি খনিজ উপাদান। জিংক কুমড়ার বীজের মধ্যে বেশি পাওয়া যায়। এটি শুক্রাণুর গুণকে ভালো করে। কুমড়ার বীজ রান্না করতে পারেন বা ভেঁজেও খেতে পারেন।

২. সাইট্রাস ফল

সাইট্রাস ফলে উচ্চ পরিমাণ ভিটামিন সি পাওয়া যায়। এটি শুক্রাণুর মানকে ভালো করে। লেবু, আঙুর, কমলা এগুলোতে ভিটামিন সি পাওয়া যায়।

৩. ব্রাজিল নাট

ব্রাজিলের নাটে সেলেনিয়াম থাকে। এটি শুক্রাণুর সংখ্যা বাড়ায়। বিশেষজ্ঞরা বলেন, সপ্তাহে তিনবার আটটি করে এই বাদাম খেলে প্রজননক্ষমতা বাড়ে।

শাশ্বতী মাথিন
আরও পড়ুনঃ   প্রজনন স্বাস্থ্যসেবা ও নিরাপদ মাতৃত্ব

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

four × one =