বিএমএর উদ্যোগে বৈজ্ঞানিক আলোচনা ও মতবিনিময় সভা

0
71
বিএমএ

বিশেষ সংবাদদাতা : ‘বিশ্ব হসপিস্ ও প্যালিয়েটিভ কেয়ার দিবস-২০১৬ উপলক্ষে বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনের (বিএমএ) উদ্যোগে শনিবার হোটেল সোনারগাঁওয়ের গ্রান্ড বলরুমে দিনব্যাপী বৈজ্ঞানিক আলোচনা ও মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।

বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো দেশব্যাপী বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনের (বিএমএ) উদ্যোগে এশিয়া প্যাসিফিক হসপিস অ্যান্ড প্যালিয়েটিভ কেয়ার নেটওয়ার্ক, ওয়ার্ল্ড চাইল্ডহুড ক্যান্সার ও সেন্টার ফর প্যালিয়েটিভ কেয়ার, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় যৌথভাবে দিবসটি পালন করে। এবছর দিবসটির মূল প্রতিপাদ্য বিষয় ছিল ব্যথাপূর্ণ জীবন এবং ব্যথাসহ মৃত্যু; কোনটিই কাম্য নয়।

বিভিন্ন পর্বে আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন বিএমএ মহাসচিব অধ্যাপক ডা. এম ইকবাল আর্সলান, এশিয়া প্যাসিফিক হসপিস অ্যান্ড প্যালিয়েটিভ কেয়ার নেটওয়ার্কের চেয়ার সিনথিয়া গুহ, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের মহাপরিচালক জনাব খন্দকার  রাকিবুর রহমান, জাতীয় জনসংখ্যা গবেষণা ও প্রশিক্ষণ প্রতিষ্ঠানের (নিপোর্ট) মহাপরিচালক রওনক জাহান, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের সেন্টার ফর প্যালিয়েটিভ কেয়ারের প্রকল্প প্রধান অধ্যাপক ডা. নিজাম উদ্দিন আহমদসহ বিএমএ কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ ও বিভিন্ন বিষয়ের বিশেষজ্ঞগণ।

বৈজ্ঞানিক আলোচনায় অংশগ্রহণ করে বিশেষজ্ঞগণ দিবসটির তাৎপর্য ও ভবিষ্যৎ করণীয় বিষয়ে বিভিন্ন মতামত প্রদান করেন। বিশেষ করে দুরারোগ্য ক্যান্সার এবং এই ধরনের রোগে আক্রান্ত পৃথিবীর শতকরা ৭৫ ভাগ রোগীই তাদের জন্য স্বীকৃত নিরাপদ আদর্শ ব্যথা নাশক ওষুধ-মুখে খাবার মরফিন না পেয়ে অসহনীয় ব্যথা নিয়ে জীবনের শেষ দিনগুলো অতিবাহিত করেন এবং ব্যথা নিয়েই মৃত্যুবরণ করেন।

বিশ্বে প্রতিটি রোগীর জন্য গড়ে ব্যবহৃত হয় ৬ মিলি. গ্রাম মরফিন সেখানে বাংলাদেশের রোগীদের জন্য ব্যবহৃত হয় গড়ে দশমিক শূন্য পাঁচ মিলি. গ্রাম। এই অবস্থার উন্নতির জন্য যথাযথ আইন সংশোধন এবং পরিবর্তন, চিকিৎসকদের যথাযথ জ্ঞান এ প্রশিক্ষণ প্রদান, রোগজনিত ব্যথা হতে মুক্তি লাভ এ মানবিক অধিকারকে স্বীকৃতি প্রদান এবং ওষুধ কোম্পানিগুলোকে একই জাতীয় দামি ওষুধগুলোর পরিবর্তে সস্তায় মরফিন প্রস্তুতকে উৎসাহিত করার (প্রয়োজনে সরকারি নিয়ন্ত্রণাধীন ‘এসেনসিয়াল ড্রাগ কোম্পানি’ কর্তৃক এর উৎপাদন এবং বিতরণ নিশ্চিত করা) জন্য বক্তারা অভিমত ব্যক্ত করেন।

আরও পড়ুনঃ   শিশুটি কি অটিজমের আশংকা মুক্ত?

বিঃ দ্রঃ গুরুত্বপূর্ণ হেলথ নিউজ ,টিপস ,তথ্য এবং মজার মজার রেসিপি নিয়মিত আপনার ফেসবুক টাইমলাইনে পেতে লাইক দিন আমাদের ফ্যান পেজ বিডি হেলথ নিউজ এ ।

LEAVE A REPLY