শরীরকে দ্রুত বিষমুক্ত করতে জেনে নিন

0
34
বিষমুক্ত শরীর

নিয়মিত গোসল করে যেমন শরীর পরিচ্ছন্ন রাখা হয়, তেমনি শরীরের ভিতরটাও নিয়মিত পরিষ্কার রাখা জরুরি। একে বলে ডিটক্সিফিকেশন৷ অর্থাৎ, শরীর বিষমুক্তকরণ।

প্রতিনিয়ত আমাদের শরীরে জমতে থাকে নানারকম বিষাক্ত পদার্থ। কিছু পদার্থ রেচন প্রক্রিয়ায় শরীর থেকে বের হয়ে যায়। কিছু ঘামের সঙ্গে বের হয়। একটা অংশ শরীরে জমা হয়। এই বিষ জমতে জমতে একসময় ভয়াবহ বিপদের কারণ হয়ে দাঁড়ায়।   তাই শরীরকে দ্রুত বিষমুক্ত করতে তরমুজ, শসা, ভিটামিন সি যুক্ত ফল খেতে পারেন। তাছাড়া সকাল বেলা এক কাপ সবুজ চা দিয়ে দিনটা শুরু করতে পারেন।

বিষ জমে শরীরের বিভিন্ন অঙ্গ যেমন- কিডনি, যকৃতৎ, হৃদপিণ্ড, ফুসফুসের ক্ষতি করে।   শরীরকে প্রাকৃতিক উপায়ে ডিটক্স করতে মাসে একটা বা দুটো দিন রোজা রাখা বা উপোস করতে পারেন৷ তবে উপোস মানে কিছুই খাবেন না তা নয়।

এ সময় শক্ত বা রান্না করা খাবার না খেয়ে ফলের রস, প্রচুর পানি, স্যালাদ খাওয়া যেতে পারে।   হালকা গরম পানিতে অর্ধেকটা লেবু নিংড়ে দিয়ে সামান্য মধুসহ সেই পানি দিয়ে শুরু করতে পারেন দিনটা। মধু আর লেবু একসঙ্গে মিলে ডাইজেস্টিভ টনিক তৈরি হয়৷ সকালের ফুরফুরে হাওয়ায় কিছুটা সময় হেঁটে আসুন। শরীরে হালকা ঘাম আসলে বিশ্রাম নিয়ে গোসল সারুন। এরপর সারাদিন বিভিন্ন ফল, স্যালাদ কিছুক্ষণ পরপর খেয়ে যেতে হবে। বিভিন্ন তাজা ফলের জুস খাওয়া যেতে পারে। প্রচুর বিশুদ্ধ পানি খেতে হবে। দুপুরে বা রাতে খেতে পারেন এক গ্লাস ডিটক্সিফাইং স্মুদি৷ সবুজ শাকসবজি ও নানা অরগ্যানিক উপকরণে তৈরি এই স্মুদিতে রয়েছে ভিটামিন, মিনারেল ও ফাইটোনিউট্রিয়েন্টস৷

ডায়েটে ফাইবার সমৃদ্ধ খাবার রাখুন৷যেদিন ডিটক্স করার কথা ভাববেন, সেদিন ভুলেও কফি খাবেন না৷ সবুজ চা খান৷ শুধু কফি নয় এই সব দিনে অ্যালকোহল, ডেয়ারি প্রোডাক্ট, চিনি, ইত্যাদিও খাওয়া মানা৷ সাধারণ শাকসবজি বা ফল না খেয়ে নিয়মিত অরগ্যানিক ফল বা সবজি খান৷

আরও পড়ুনঃ   নারীরা পুরুষদের শরীরের কোন অঙ্গগুলোকে বেশি পছন্দ করে থাকেন?

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here