যেসব টিকা নেওয়া জরুরী -সব বয়সীদের জন্য

0
503
টিকা নেওয়া জরুরী ,সব বয়সীদেরজন্য

রোগ প্রতিরোধের জন্য ভ্যাকসিন বা টিকা নেওয়া খুবই জরুরি। অনেকে ভাবেন টিকা শুধু শিশুদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ। কিন্তু এই ধারণা মোটেও ঠিক না। সুস্থ থাকার জন্য সব বয়সীদের কিছু টিকা নেওয়া উচিত।

আমাদের দেশে সম্প্রসারিত টিকাদান কর্মসূচির আওতায় শিশুদের ৭টি মারাত্মক রোগের টিকা দেওয়া হচ্ছে। এগুলো হলো পোলিও, যক্ষ্মা, ডিপথেরিয়া, হাম, টিটেনাস বা ধনুস্টংকার, হুপিংকাশি ও জন্ডিস (হেপাটাইটিস ‘বি’)।

শিশুদের পাশাপাশি বড়দেরও বিভিন্ন রোগ থেকে রক্ষা পেতে টিকা দেওয়া জরুরি। এর মধ্যে উল্লেখ্যযোগ্য হল- হেপাটাইটিস ‘এ’ ও ‘বি’ (জন্ডিস), হাম, ম্যাম্পস, রুবেলা, টাইফয়েড, চিকেন পক্স, মেনিনজাইটিস ও নিউমোনিয়া।

– লিভার ক্যানসার, লিভার সিরোসিসের মতো ঘাতক রোগের জন্য দায়ী হেপাটাইটিস ‘বি’ ভাইরাস। এ ভাইরাস মূলত লিভারের কোষ ধ্বংস করে লিভার অকেজো করে ফেলে। ফলে রোগীর মৃত্যু হতে পারে।

– পৃথিবীতে প্রতিবছর মরণব্যাধি এইডসের কারণে যত মানুষের মৃত্যু হয়, হেপাটাইটিস ‘বি’র কারণে প্রতিদিন এর চেয়ে বেশি মানুষ মৃত্যুবরণ করে। সংক্রমিত সুচের মাধ্যমে রক্তদান, রক্তগ্রহণ বা সংক্রমিত রক্তগ্রহণ, জন্মের সময় মায়ের কাছ থেকে শিশু কিংবা সংক্রমিত পুরুষ বা নারীর মধ্যে যৌনকর্মের মাধ্যমে হেপাটাইটিস ‘বি’ ভাইরাস ছড়াতে পারে। একমাত্র টিকা গ্রহণের মাধ্যমেই রোগের বিরুদ্ধে শরীরে প্রতিরোধ ব্যবস্থা গড়ে তোলা সম্ভব। শিশুকে জন্মের সময় কিংবা জন্মের পর এবং বড়দের যথাসাধ্য দ্রুত টিকা নেওয়া দরকার।

– টাইফয়েড জ্বর হলে ব্রংকাইটিস, নিউমোনিয়া, পিত্তথলির প্রদাহ, মূত্রনালি প্রদাহ কিংবা মেনিনজাইটিস হতে পারে। সম্প্রতি দেখা গেছে, টাইফয়েডের উপসর্গ পরিবর্তন হচ্ছে এবং বাজারে প্রচলিত অ্যান্টিবায়েটিক ভালো কাজ করছে না। তাই টিকা গ্রহণ জরুরি।

– চিকেন পক্স বা জলবসন্ত ছোঁয়াচে রোগ। আক্রান্ত ব্যক্তির সর্দি-কাশি থেকে অন্যের মধ্যে এ রোগ সংক্রমিত হয়। ‘ভেরিসেলা জাস্টার’ নামক জীবাণু চিকেন পক্সের জন্ম দেয়। এ রোগ নিউমোনিয়া, চামড়ায় স্থায়ী দাগ, গর্ভপাত কিংবা মৃত শিশু প্রসব এবং প্রাপ্তবয়স্কের ক্ষেত্রে হেমোরেজিক ভ্যারিসেলা, এনকেফালাইটিস হতে পারে।

আরও পড়ুনঃ   কোলেস্টরল কমানোর প্রাকৃতিক উপায় জেনে নিন

– ‘নিউমোনিয়া’ ও ‘মেনিনজাইটিস’ হিবজনিত রোগ। এটি প্রধানত শিশুদের সংক্রমণ করে থাকে। ‘হিমোফিলাস ইনফুয়েঞ্জা’ নামক এক ধরনের ব্যাকটেরিয়ার মাধ্যমে এ রোগ সংক্রমিত হয়। হিব আক্রান্ত শিশুর হাঁচি, কাশি, থুতু দ্বারা অন্য শিশুর এ রোগ ছড়ায়। ৪-১২ মাস বয়সী শিশুরা সবচেয়ে ঝুঁকিপূর্ণ।

তাই টিকা গ্রহণের মাধ্যমে আপনার শিশু ও নিজে জটিল রোগ থেকে দূরে থাকুন।

বিঃ দ্রঃ গুরুত্বপূর্ণ হেলথ নিউজ ,টিপস ,তথ্য এবং মজার মজার রেসিপি নিয়মিত আপনার ফেসবুক টাইমলাইনে পেতে লাইক দিন আমাদের ফ্যান পেজ বিডি হেলথ নিউজ

LEAVE A REPLY