৬টি কৌশলে ধরে রাখুন বিশ্বাস

0
57
বিশ্বাস
সম্পর্কে বিশ্বাস অনেক বড় বিষয়। বিশ্বাস আছে মানে যেন অক্সিজেন আছে। হ্যাঁ, সম্পর্কেরও প্রয়োজন আছে শ্বাস নেওয়ার। সে সম্পর্ক কখনো স্বাস্থ্যকর নয় যেখানে আপনার মন প্রশান্ত হয় না, ভালবাসার স্পর্শ স্নিগ্ধতা এনে দেয় না। ভালবাসা যেন ভোরের শিশির, ভালবাসা যেন দিগন্তজোড়া সবুজ আর সুনীল আকাশের মিলন। এজন্যই শত কষ্ট-যন্ত্রণার মাঝেও ভালবাসার মানুষকে জড়িয়ে ধরলে মনে হয়, জীবনে আর কোনকিছু চাই না, শুধু এই আশ্রয়টুকু চাই। বিশ্বাসের দামে কেনা আশ্রয়ে বিশ্বাস ধরে রাখা খুব জরুরী। আজীবন বিশ্বস্ত থাকতে করুন এই কাজগুলো-
 
হন খোলা ডায়েরি
সঙ্গীর কাছে কিছুই লুকাবেন না। হ্যাঁ, প্রতিটি ব্যক্তি স্বত্ত্বাই আলাদা এবং প্রত্যেকেরই নিজস্ব কিছু স্পেস প্রয়োজন জীবনে। আপনার বন্ধু তার একটি গোপন কথা আপনার সাথে শেয়ার করল। সেটি নিশ্চয়ই আপনি আপনার সঙ্গীকে বলে দেবেন না। আপনার বন্ধু এবং আপনার সম্পর্কের বিশ্বস্ততার প্রশ্নও রয়েছে। কিন্তু এমন বিষয় যা আপনার সঙ্গীর সাথে আপনার সম্পর্কের মাঝে আস্থার প্রশ্ন তুলতে পারে তা অবশ্যই তাকে জানান।
তাকে প্রস্তুত করুন
আপনি হয়ত বিশ্বস্ততার জায়গা থেকে নিজের অতীতের কথা আপনার সঙ্গীকে জানালেন। তিনি সেসব কথা শুনে আপনাকে বোঝার পরিবর্তে বরং আপনাকে নেতিবাচক দৃষ্টিতে বিচার করতে শুরু করলেন। সব বিষয়ে অতীতকে জড়িয়ে সন্দেহ করতে থাকলেন। এমন মানসিকতার মানুষের কাছে নিজের সব কথা না বলাই ভাল। আগে তাকে মানসিকভাবে প্রস্তুত করুন। আপনার যত্ন, ভালবাসা দিয়ে আস্থা অর্জন করুন। এরপর সব কথা জানাবেন, এমনভাবে জানাবেন যাতে আপনাকে দোষারোপ করার কোন সুযোগ না থাকে।
অহংকার ছেড়ে দিন
আপনার অহংকার আপনার সঙ্গীর কাছে আপনাকে অবিশ্বাসী করে তুলতে পারে। তিনি হয়ত কোথায় যাচ্ছেন, কি করছেন সবই বলছেন আপনাকে। কিন্তু আপনি সেসবের দরকারই বোধ করছেন না। তিনি আপনাকে নিজের জীবনে সবখানে জায়গা দিচ্ছেন। কিন্তু আপনি তাকে যোগ্যতায় আপনার সমান ভাবতে পারছেন না কোনভাবে। এতে সে আপনার সম্পর্কে অন্ধকারে থাকবে সবসময় এবং অল্পতেই তার মনে দানা বাধবে সন্দেহ।
 
প্রশ্নের উত্তর দিন
সঙ্গীর কাছে সম্পূর্ণ সৎ হন। তার প্রশ্নের উত্তর দিন আত্মবিশ্বাসের সাথে নির্দ্বিধায়। প্রশ্ন এড়িয়ে যাওয়া মনে সন্দেহের সৃষ্টি করে। মাথা ঠান্ডা রাখুন সবসময়। আপনার সঙ্গীর অধিকার আছে আপনার সম্পর্কে জানার। তাকে উত্তর দিন। তবে অবশ্যই আত্মসম্মান বয়ায় রেখে। আপনি যদি নিজের অবস্থান থেকে নিচে নামতে শুরু করেন তাহলে সেটা আপনার দূর্বলতা প্রকাশ করবে। মাথা উঁচু করে স্বচ্ছতা বজায় রাখুন সবসময়।
ভালবাসা প্রকাশ করুন
আমরা অনেকেই যারা ইন্ট্রোভার্ট তারা মন খুলে ভালবাসা প্রকাশ করতে পারি না। ছোট ছোট আন্তরিক কথা, একই ‘ভালবাসি’ শব্দটি বারবার উচ্চারণ করা সম্পর্কের আন্তরিকতা বাড়ায়। আপনার সঙ্গী যখন অনুভব করেন, আপনি তার জীবনে সবচেয়ে দামী তখন সে নিশ্চিত বোধ করে। এই জন্য কৃতজ্ঞতা অনুভব করা এবং প্রকাশ করা খুবই জরুরী।
 
‘আমি’ নয়, ‘আমরা’
মনোবিজ্ঞানীরা সম্পর্কের স্থায়ীত্বের জন্য বার বার জোর দিয়েছেন সব কাজ একসাথে করার ক্ষেত্রে। বিভিন্ন গবেষণায় দেখা গেছে, যেসব যুগল এমনকি প্রতি রাতে একসাথে ঘুমাতে যান তাদের মাঝে জটিলতা অন্যদের তুলনায় অনেক কম। তাই একসাথে বেড়াতে যান, পছন্দ-অপছন্দ শেয়ার করুন। একে অপরকে প্রভাবিত করার চেষ্টা করুন। সব কাজে ‘আমি’ নয়, নিয়ে আসুন ‘আমরা’। অবিশ্বাস প্রবেশের জায়গাই পাবে না।
 
লিখেছেন
আফসানা সুমী

বিঃ দ্রঃ গুরুত্বপূর্ণ হেলথ নিউজ ,টিপস ,তথ্য এবং মজার মজার রেসিপি নিয়মিত আপনার ফেসবুক টাইমলাইনে পেতে লাইক দিন আমাদের ফ্যান পেজ বিডি হেলথ নিউজ এ ।

আরও পড়ুনঃ   পরিবার : ভালোবাসাই যার অস্তিত্বের মূল

LEAVE A REPLY