আঙুল ফোটানো কি আসলেই ক্ষতিকর?

0
আঙুল ফোটানো

অনেকেরই আঙুল কিংবা দেহের বিভিন্ন অংশের অস্থিসন্ধি ফোটানোর অভ্যাস থাকে। তবে এ অভ্যাস সম্পর্কে অনেকেরই বিস্তারিত জানা নেই। বিশেষজ্ঞরা বলছেন আঙুল কিংবা দেহের যে কোনো অস্থিসন্ধি ফোটানো মোটেই উচিত নয়।

এ বিষয়ে নিউ ইয়র্কের স্পেশিয়াল সার্জারি ইন্টিগ্রেটিভ কেয়ার সেন্টারের চিকিৎসকরা বলেন, ‘ নিজেই নিজের দেহের কোনো অস্থিসন্ধি সেলফ-অ্যাডজাস্ট করা যদি অভ্যাস হয়ে যায় তাহলে তা দেহের জন্য ক্ষতিকর।’

ফিলাডেলফিয়ার রথম্যান ইনস্টিটিউটের হাত ও কবজির চিফ অব সার্জারি ডা. পেদ্রো বেরেজিকলিয়ান জানাচ্ছেন, আঙুল ফোটালে কেন এমন আওয়াজ সৃষ্টি হয়, যখন আপনি আঙুল ফোটান কিংবা টানেন, তখন দুই হাড়ের মাঝে কিছু ফাঁকা জায়গা বের হয়। এতে নিম্নচাপ সৃষ্টি হয় এবং সেখানে হাড়ের মজ্জা ঢুকে যায়। হঠাৎ করে এভাবে তরল ঢোকার ফলেই সে শব্দ সৃষ্টি হয়।

বিশেষজ্ঞের কথায়, এ জয়েন্টগুলোতে রয়েছে লিগামেন্ট, টেন্ডন ও অন্য সফট টিসুর কাঠামো, যা সময়ের সঙ্গে সঙ্গে পরিবর্তিত হয়। যে কোনো অনাকাঙ্ক্ষিত চাপই এগুলো ভেঙে দিতে পারে। অনেকেরই আঙুল ফোটানোর শব্দ পছন্দ। যদিও এটি আঙুল ভেঙে ফেলে না। আমাদের দেহের অস্থিসন্ধিগুলোতে থাকে তরল পদার্থ ও নাইট্রোজেন ও কার্বন ডাই-অক্সাইড গ্যাস। এ তরল পদার্থে চাপ প্রয়োগ করা হলে তা গ্যাসগুলো নির্গমণ করে এবং শব্দ শোনা যায়। অনেকেরই মেরুদণ্ডের হাড়গুলো ফোটানোর অভ্যাস থাকে। এটিও ক্ষতিকর বলে জানান চিকিৎসকরা। এ কাজটি করলে মেরুদণ্ডের মারাত্মক ক্ষতিও হতে পারে বলে জানান বিশেষজ্ঞরা।

আঙুল ফোটালে শব্দ হয় কেন জানেন কি? না জানলে জেনে নিন তার আসল রহস্য!!

আরও পড়ুনঃ   যে খাবারগুলো কখনোই নষ্ট হবে না!

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

15 − 6 =