ইমার্জেন্সি পিল নিয়ে যত ভুল ধারণা

0
ইমার্জেন্সি পিল

বর্তমান প্রজন্ম সচেতন হলেও অনেক সময় যৌনমিলনে প্রতিরোধক ব্যবহার করতে ভুলে যান কিংবা ইচ্ছাকৃতভাবেই ব্যবহার করেন না। তখনই প্রয়োজন হয় ইমার্জেন্সি কন্ট্রোসেপটিভ পিলের। তবে এই পিল সবেন নিয়ে রয়েছে অনেক ভুল ধারণা কুসংস্কার, সচেতন হলেই যেগুলো সম্পর্কে জেনে নেওয়া সম্ভব।

১. অনেকেই মনে করেন, ইমার্জেন্সি পিল সকাল ছাড়া অন্য সময় খেলে কাজ হবে না। সত্যিটা হলো, তিন দিনের পিল গুলো ৭২ ঘন্টা এবং ৫ দিনের পিলগুলো ১২০ ঘন্টার যে কোনো সময় সেবন করা যায়। তবে অরক্ষিত যৌন মিলনের পর যত তাড়াতাড়ি এই পিল সেবন করা যায়, ততই এটি কাজ করার সম্ভাবনা বেড়ে যায়।

২. অনেকেই মনে করেন ইমার্জেন্সি পিল কিনতেও ডাক্তারের প্রেসকিপশন দরকার। জেনে রাখুন, আপনি চাইলে যেকোনো সময় কাছের ওষুধের দোকানে গিয়ে চাইতে পারেন ইমার্জেন্সি পিল। এর জন্য কোনো লিখিত অনুমোদনের দরকার নেই।

৩. ইমার্জেন্সি নিয়ে সবচেয়ে বড় ভুল ধারণাটি হলো, এটির সেবন আর গর্ভপাত একই কথা। এটা পুরোপুরি একটি কুসংস্কার। কারণ ডিম্বাণুর সঙ্গে শুক্রাণুর মিলনের মাধ্যমে ভ্রূণের নিষিক্ত হতে কমপক্ষে ৫ দিন সময় লাগে। ইমার্জেন্সি পিলের কাজ এই সময়ের মধ্যে ডিম্বাণুর উর্বরতা কমিয়ে দেওয়া অথবা উর্বর ডিম্বাণুকে শুকাণুর সঙ্গে মিলনে বাধাগ্রস্ত করা। অর্থাৎ ভ্রূণ নিষিক্ত হওয়ার প্রক্রিয়া থামানোই এর মূল কাজ। সুতরা!- যেখানে ভ্রুণই তৈরি হয়নি, সেখানে ভ্রুণ হত্যার প্রশ্ন তো আসবেই না! এনডিটিভি

আরও পড়ুনঃ   রং ফর্সাকারী ক্রিম ব্যবহারে সতর্কতা

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

2 × 5 =