এক গ্লাস লেবু পানি-লেবু পানির এত উপকারিতা!

0
lemon-water
লেবু পানির এত উপকারিতা

আরো পড়ুন লেবু পানির চমৎকার ২০ স্বাস্থ্য উপকারিতা

শতাব্দীর পর শতাব্দী ধরেই লেবুর উপকারি গুণাগুণ মানুষের জানা। এর মাঝে একটা প্রধান উপকারিতা হলো ব্যাকটেরিয়া, ভাইরাস ইত্যাদির তৈরি করা রোগ বালাই দূরীকরণ এবং শরীরের সার্বিক রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি। আরেকটা হলো হজম শক্তি বাড়ানো এবং যকৃৎ পরিষ্কারের মাধ্যমে ওজন কমানোর ক্ষমতা।
লেবুতে সাইট্রিক এসিড এর পাশাপাশি আরও রয়েছে ক্যালসিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম,বায়োফ্লাভোনোয়েড, পেক্টিন এবং লিমোনিন। এই সবগুলো পদার্থের প্রভাবেই আমাদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ে এবং রোগের সাথে শরীর যুদ্ধ করার শক্তি পায়। সকালে এক গ্লাস গরম পানির সাথে লেবুর রস মিশিয়ে পান করলে এসব
উপকার সর্বাধিক মাত্রায় পাবে আপনার শরীর। গরম পানি কেন? কারণ ঠাণ্ডা পানির চাইতে গরম পানি শরীরে শোষিত হয় অনেক দ্রুত এবং এর থেকে তত বেশি উপকৃত হবেন আপনি। এক গ্লাস কুসুম গরম পানিতে অর্ধেকটা লেবুর রস মিশিয়ে পান করতে পারেন। আর সকালে উঠে অন্য যে কোনও কাজ করার আগেই এটা পান করবেন। তাহলেই পাবেন এর অসাধারণ সব উপকারিতা।

লেবুর গুনাগুন প্রচুর, বিশেষ করে এর ভিটামিন সি এবং খনিজ উপাদান সমূহ আমাদের প্রচুর উপকার করে। হৃদযন্ত্রের ধড়ফড়ানি কমানো থেকে ফুসফুসকে ঠিক ভাবে কাজ করতে পর্যন্ত সাহায্য করে লেবু। তবে আজকে আমরা সংক্ষেপে এক গ্লাস লেবু পানির উপকারীতা দেখবো। হয়ত অন্য কোন লেখায় লেবুর আরও উপকারীতা নিয়ে লিখবো।

এক গ্লাস লেবু পানির উপকারীতাঃ

১. দেহের ওজন নিয়ে কে না ভয় পায়? প্রতিদিন সকালে এক গ্লাস কুসুম গরম পানির মধ্যে একটি লেবু, আর একটু মধু, ব্যাস, এটা প্রতিদিন পান করলেই আপনার ওজন কমতে থাকবে দ্রুত।

২. প্রতিদিন একগ্লাস লেবুর সরবত মানে আপনি ক্যান্সার থেকে অনেক দূরে।

৩. গ্যাস্ট্রিক সমস্যা? একগ্লাস লেবুর পানি পান করুন; পানি কুসুম গরম করে নিবেন। তারপর দেখুন ফলাফল।

৪. পিত্ত্বথলিতে পাথর জমবার ভয়? প্রতিদিন সকালে একগ্লাস লেবু পানি পান করতে থাকুন, এবং ভয় মুক্ত থাকুন।

আরও পড়ুনঃ   জেনে নিন বাদামের গুণাগুণ

৫. সামনে তো গরম আসছে। এক গ্লাস লেবু পানি আর একটু চিনি নিয়ে পান করে দেখলেই বুঝবেন, ক্লান্তি কোথা থেকে কোথায় পালায়!

৬. ঘন ঘন কৃমির আক্রমনে ক্লান্ত? প্রতিদিন একগ্লাস লেবু পানি পান করুন, আর কৃমির সাথে যুদ্ধ জয় করুন!

৭. লিভার ইনফেকশন থেকে দূরে থাকতে চাইলেও সেই একই পথ্য।

৮. দেহের গিরায় গিরায় ব্যাথা? মলম লাগবে না, প্রতিদিন একগ্লাস করে লেবু পানি পান করুন।

৯. হজমশক্তি কম? লেবু পানি আছে না? পান করুন, আর হজমশক্তি বৃদ্ধি করুন।

১০. হালকা ঠান্ডা লাগা, গলা ব্যাথা, টনসিল আর শ্বাসযন্ত্রের ইনফেকশন, সেই লেবু পানিই উপকারী।

১১. এত সময় নিশ্চই প্রতিদিন লেবু পানি পান করলে আপনার রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়বে।

১২. শুধু কি রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা? সাথে সাথে ব্লাড প্রেসারও কমবে।

১৩. যারা মসৃণ ত্বকের অধীকারীণী হতে চান, লেবু পানিকে প্রতিদিনের মেন্যুতে রাখতে ভুলবেন না।

১৪. গর্ভবতী? লেবু পানি পান করতে ভুলবেন না; আপনার দেহের ক্ষতিকর ভাইরাস ধ্বংস ছাড়াও হাড়ের টিস্যু মজবুত করবে, নবজাতক থাকবে রোগ মুক্ত।

১৫. এবার পান নয়, কোথাও পুড়ে গেলে সেখানে লেবুর রসের সাথে একটু পানি মিশিয়ে লাগালে দ্রুত ক্ষত সেরে উঠবে।

কীভাবে পান করবেন?
সকালে খালি পেটে এক গ্লাস লেমন বা পাকা লেবুর রস মেশানো উষ্ণ পানি পান করুন। চাইলে সাথে যোগ করতে পারেন মধু। বড় লেবু হলে অর্ধেকটি আর ছোট হলে একটি লেবুর রস মিশিয়ে নিন। তার মানে এই নয় যে আপনাকে ফুটপাতের লেবুর পানি পান করতে বলা হচ্ছে। এইসব পানি বা বরফ কতটুকু জীবানুমুক্ত তা কে বলতে পারে?

আশাকরি এত সময়ে বুঝে গেছেন যে প্রতিদিন মাত্র এক গ্লাস লেবু পানি পান করা কত সুফল বয়ে আনতে পারে। তাই, আজকে থেকেই শুরু করুন লেবু পানি পান করা। আপনার জীবন আনন্দময় হোক এবং সুস্বাস্থ্যে ভরে উঠুক।

আরও পড়ুনঃ   প্রতিদিন সকালে এই ৬ পানীয়র একটি পান করুন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

five × four =