ঘুম আসে না রাতে? মাত্র ১ মিনিটেই ঘুমিয়ে পড়ার কৌশল জেনে নিন

0
222
ঘুম

ঘুম না আসা খুবই যন্ত্রণাকর একটি ব্যাপার। বিছানায় শুয়ে এপাশ ওপাশ করা এবং ঘড়ির দিকে তাকিয়ে রাত পার করার যন্ত্রণা যারা ভুক্তভুগি তারাই বলতে পারবেন। ঘুম না হওয়ার সবচাইতে প্রথম ও প্রধান কারণ হচ্ছে মন অস্থির থাকা। আর মন অস্থির হয়ে থাকার অন্যতম কারণ হচ্ছে মানসিক চাপ। মানসিক চাপ হওয়ার কারণে ঘুম আসতে চায় না একেবারেই। –

রাতে বিছানায় শুয়ে এপাশ-ওপাশ করেন? যতই চেষ্টা করুন না কেন কিছুতেই দু’চোখের পাতায় ঘুম আসে না। হার্ভার্ড এর একজন বিশিষ্ট চিকিৎসক Dr. Andrew Weil এর একটি পরামর্শ কাজে লাগিয়ে দেখতে পারেন সেটা হচ্ছে “সঠিক ভাবে নিঃশ্বাস নিন”। যার ফলে এক মিনিটে ঘুমিয়ে পড়া সম্ভব।

চলুন তাহলে প্রক্রিয়াটি জেনে নেই-

এই প্রক্রিয়াটি তাদের জন্যই যাদের ঘুম আসার অপেক্ষায় রাত প্রায় শেষ হয়ে যায়। Dr. Andrew Weil প্রবর্তিত কৌশলটি ৪-৭-৮ কৌশল নামে পরিচিত। খুবই সহজ একটি প্রক্রিয়া। কয়েকটি ধাপ অনুসরণ করলেই হয়। সেই ধাপগুলো নিচে উল্লেখ করা হলো-

১। নাক দিয়ে ধীরে ধীরে ৪ সেকেন্ড নিঃশ্বাস নিন।

২। সেকেন্ডের জন্য নিঃশ্বাস ধরে রাখুন।

৩। এবার সেকেন্ডের জন্য মুখ দিয়ে নিঃশ্বাস ছাড়ুন।

খুব সহজ একটি পদ্ধতি এটি। শুনতে হয়তো খুব কঠিন শোনাচ্ছে কিন্তু একটু চেষ্টা করেই দেখবেন কত সহজ এটি!

কীভাবে কাজ করে:

লক্ষ্য করুন এই প্রক্রিয়াটিতে ৪ সেকেন্ড, ৭ সেকেন্ড এবং ৮ সেকেন্ড সময় ধরে সঠিকভাবে শ্বাসপ্রশ্বাস নেয়া হয়েছে। তাই এই প্রক্রিয়াকে ৪-৭-৮ কৌশল বলা হয়ে থাকে। এবার ৮ সেকেন্ড নিঃশ্বাস ছাড়ার পর আবার ৪ সেকেন্ডের জন্য নিঃশ্বাস নিন। আগের প্রক্রিয়াতে আবার করুন। ঠিক এইভাবে ৩ বার করুন। এই প্রক্রিয়াটি ৩ বার করতে ৫৭ সেকেন্ড সময় লাগবে এবং এরপরই আপনি ঘুম ঘুম ভাব অনুভব করবেন।

৪-৭-৮ কৌশলটি কেন কার্যকরী- হয়তো অবাক হতে পারেন নিতান্ত সাধারণ এবং কোনো রকম কষ্টকর কাজ ছাড়াই এই প্রক্রিয়াটি কিভাবে কাজ করে। এই প্রক্রিয়াটির সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ধাপ হচ্ছে দ্বিতীয়টি। কারন এই ধাপে নিঃশ্বাস ৭ সেকেন্ডের জন্য ধরে রাখা হয়। একটি গভীর শ্বাস নেয়ার পর এই ধাপে ফুসফুস অক্সিজেন দ্বারা পূর্ণ থাকে এই সময়টা। এর ফলে সারা দেহে অক্সিজেন প্রবাহিত হয় যা দেহকে শিথিল করতে সাহায্য করে। এটি মানসিক চাপ ও হতাশা দূর করতে সাহায্য করে। এইজন্যই Dr. Weil উদ্বেগ কমাতে এই প্রক্রিয়াটির পরামর্শ দিয়েছেন। শ্বাস প্রশ্বাসের কৌশল ঐতিহ্যগত চিকিৎসার একটি অংশ এবং এখন এটির সাহায্যে খুব দ্রুত ঘুমিয়ে পড়ার কৌশলও আবিষ্কৃত হলো। তাহলে আর দেরি কেন আজ রাত থেকেই শুরু করুন প্রক্রিয়াটি যা আপনাকে স্বপ্নের জগতে নিয়ে যাবে খুব দ্রুত

অর্থাৎ যখন আপনি খুব প্রেসারে এবং চিন্তায় থাকেন, তখন আপনার রক্তে বৃক্করসের পরিমাণ বেড়ে যায়। সেই সাথে আপনার নিঃশ্বাসও খুব দ্রুত এবং হাল্কা হতে থাকে। এই নিঃশ্বাসের ব্যায়াম অনেকটা ঔষধের মতন কাজ করে। এটি ধীরে ধীরে আপনার শ্বাসপ্রশ্বাস ও হৃসস্পন্দন ধীর করতে থাকে। খুব সহজ একটি রসায়ন এটি!

আরও পড়ুনঃ   চোখে ঘুম নেই? জেনে নিন কৌশল

এই সাধারণ ব্যায়াম আপনার মনকেও শান্ত করতে সাহায্য করে। কারণ, শুধুমাত্র নিঃশ্বাসের দিকেই নজর দেওয়া হয় এতে। আপনি হয়তো আন্দাজ করতে পারেন না, কিন্তু নিমিষেই খুব হালকা বোধ করা শুরু করেন।

 ঘুমের অভ্যাস উন্নত করতে আরেকটি কৌশল :

মাঝরাতে যদি হুট করে আপনার ঘুম ভেঙ্গে যায়, এই ব্যায়াম আপনাকে সাহায্য করবে। শুধু তাই নয়, কোনো গুরুত্বপূর্ণ মিটিং কিংবা পরীক্ষার আগেও এটি আপনাকে সাহায্য করবে।

ভালো ফলের জন্য ব্যবহার করতে পারেন ‘স্লিপিং পোশন’।

ঘুমোনোর আগে এটি খেয়ে শুতে পারেন। উপাদানগুলো হলো:

– সিকি চা-চামচ মধু।

– এক চিমটি লবণ।

– এক চা-চামচ নারিকেল তেল।

আপনি এটি শুধু শুধু খেতে পারেন কিংবা এক গ্লাস গরম পানিতে মিশিয়ে খেতে পারেন। এই ছোট্ট পানীয়টি আপনার ঘুমের অভ্যাস উন্নত করতে সাহায্য করবে।

ঘুম নিয়ে মানুষের সমস্যার কোন কমতি নেই। বেশীরভাগ মানুষ সময়মত ঘুমাতে পারেন না। বিছানায় শোবার পরও ঘুম আসার কোন খবর থাকে না। যার ফলে দেখা যায় বিভিন্ন ধরণের শারীরিক ও মানসিক সমস্যা। যাই হোক, আমাদের সকলের পর্যাপ্ত পরিমাণ ও সময়মত ঘুমের প্রয়োজন রয়েছে। এর জন্য কিছু সহজ পদ্ধতি অবলম্বন করলেই নিদ্রাজনিত সমস্যা দূর হতে পারে।

মাঝরাতে ঘুম ভেঙ্গে যায় কেন?

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

8 + 13 =