মধু কেন খাবেন এবং খাঁটি মধু চেনার উপায় কী?

0
849
আসল মধু

মধু খেতে পছন্দ করেন না আমাদের সমাজের এমন মানুষের খোঁজ পাওয়া একটু দুরূহ ব্যাপার বটে। তবে মধু যে সবাই শুধু পছন্দ করে খায় তা কিন্তু না। এই মধুর রয়েছে অনেক গুণ।বিশেষ করে ত্বকের যত্নে ও ঠাণ্ডাজনিত সমস্যা সারাতে মধুর জুড়ি নেই। মধুতে প্রায় ৪৫টিও বেশি খাদ্য উপাদান থাকে। তবে এতে সাধারণত কোনো চর্বি ও প্রোটিন নেই। প্রতি ১০০ গ্রাম মধু থেকে আমরা পাই ৩০৪ ক্যালরি।

বাজারের বিভিন্ন মানের মধু পাওয়া যায়। তবে মধু কিনতে গেলে কমবেশি সবাই বিপাকে পড়ে যান। কারণ নকল মধুতে বাজার সয়লাব। সব মধুর চেহারা একই রকম হওয়ায় বোঝা দায় কোনটি আসল, কোনটি নকল। খাটি মধু চেনার উপায় জানতে হলে আপনার কিছু কৌশল জানা প্রয়োজন, খুব সহজেই চিনতে পোরেন আসল মধু। তবে আসল মধু চেনার আগে চিনতে হবে নকল মধু।

এক মিনিটে যাচাই করুন আসল মধু

এক গ্লাস পানিতে এক চামচ পরিমাণ মধু দিন। তারপর আস্তে আস্তে গ্লাসটি নাড়া দিন। মধু পানির সঙ্গে মিশে গেলে নিশ্চিত হবেন সেটা ভেজাল মধু। আর মধু যদি ছোট পিণ্ডের মতো গ্লাসের পানিতে ছড়িয়ে যায়, তাহলে বুঝবেন সেটা খাটি মধু।

নকল মধুতে ফেনা হয়

নকল মধুতে ফেনা হয়। এছাড়া একটু টকটক গন্ধ থাকবে এবং গন্ধ তেমন ভালো হয় না।

পাতলা হয়

নকল মধু বেশ পাতলা হয়। স্তরগুলো আলাদা করা যায়।এছাড়া খেতে সুস্বাদু হয় না। এছাড়া তলানিটা খসখসে থাকে।

আসল মধু চেনার উপায় মধুর পুরুত্ব দেখুন

সামান্য মধু আঙ্গুলে নিন, এর পুরুত্ব দেখুন। আসল মধু অনেক বেশি আঠালো হবে।

একগ্লাস পানিতে মধু ড্রপ আকারে ছেড়ে দিন

খাঁটি মধু ড্রপ অবস্থায়ই গ্লাসের নিচে চলে যাবে। তারপর আস্তে আস্তে গ্লাসটি নাড়া দিন। মধু পানির সঙ্গে মিশে গেলে নিশ্চিত হবেন সেটা ভেজাল মধু। আর মধু যদি ছোট পিণ্ডের মতো গ্লাসের পানিতে ছড়িয়ে যায়, তাহলে বুঝবেন সেটা খাটি মধু

আরও পড়ুনঃ   যৌন শক্তি বাড়ানোর খাবারগুলো-জেনে রাখুন সারা জীবন কাজে লাগবে!

মধুতে পিঁপড়া ধরবে না

মধু যদি নকল না হয় তবে দীর্ঘদিন থাকলেও মধুর নিচে জমাট বাঁধবে না। এছাড়া পিঁপড়া ধরবে না।

উপরের প্রচলিত উপায়সমূহ আসলে সত্য কিনা জানতে এই লিংকে ক্লিক করে পোস্টি পড়ুনঃ

খাঁটি মধু চেনার ১২ টি উপায় জেনে নিন

এই পর্যায়ে জেনে নিন মধু খাওয়ার কিছু কারণ:

মধুর রয়েছে মধুর গুণাগুণ। রূপচর্চা থেকে শুরু করে সুস্বাস্থ্যের জন্য সবক্ষেত্রেই রয়েছে মধুর প্রয়োজনীয়তা। সামান্য গরম পানির সাথে মধু মিশিয়ে খাওয়া স্বাস্থ্যের জন্য বেশ উপকারী। অনেক লোক নিয়মিত সকালে এক গ্লাস গরম পানির সাথে মধু মিশিয়ে খান। এর প্রধান সুবিধা হচ্ছে মধু ওজন কমায়। মধুর বহুমুখী উপকারিতা রয়েছে।

  • মধু মেশানো গরম পানি চর্বি কমাতে সহায়তা করে।
  • গরম পানির সাথে মধু মিশিয়ে পান করলে কোষ্ঠকাঠিন্য দূর হয়।
  • গরম পানির সাথে মধু মিশিয়ে খেলে প্রথম আপনার ওজন কমবে। কারণ গরম পানি ওজন কমাতে সহায়ক।
  • মধু শরীরের শক্তি বৃদ্ধি করে কিন্তু মেদ বাড়ায় না। এটি স্বাস্থ্যসম্মতভাবে প্রতিদিন সকালে খাওয়া উচিত।
  • পানিশূন্যতা দূর করতে মধু খেতে পারেন। কারণ মধু শরীরে পানি জোগান দিয়ে শরীর সতেজ ও প্রাণবন্ত রাখে।
  • মধু রূপচর্চায় ব্যবহার করতে পারেন। কেননা মধু ত্বক পরিষ্কার করে এবং ব্যাকটেরিয়া দূর করে।
  • পাকস্থলির জন্য মধু খুবই উপকারী। পানির সাথে মধু মিশিয়ে খেলে তা পাকস্থলিতে খাদ্যদ্রব্য হজমে সহায়তা করে। এর ফলে আপনি ক্ষুধা অনুভব করবেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

5 × five =