কেন আমাদের অবশ্যই তেঁতো খাওয়া উচিত?

0
115
তেঁতো

নিম পাতা, উচ্ছে, কালমেঘ, করলা। নামগুলো শুনেই নাক-মুখ কুঁচকে উঠলেন নিশ্চয়ই? তেঁতো খেতে আমাদের মধ্যে বেশিরভাগ মানুষেরই একেবারেই ভালোলাগে না। তবু রোজ বাবা-মায়েরা জোর করে তেঁতো খাওয়ান আর বলেন এতে নাকি শরীর ভালো থাকবে। জোর করে সেগুলো হয়তো খেয়ে নেন আবার হয়তো বা খান না। কিন্তু জানেন কি কেন আমাদের রোজ তেঁতো খাওয়াটা জরুরি? এতে আমাদের শরীরের কোন কোন উপকার হয়? জেনে নিন-

১) তেঁতো সব্জিতে প্রচুর পরিমানে ভিটামিন এ, সি এবং কে থাকে। এছাড়াও এতে ক্যালসিয়াম, পটাসিয়াম এবং ম্যাগনেসিয়াম থাকে। তেঁতো সব্জিতে ফাইবারও প্রচুর পরিমানে থাকে। এতে ফ্যাট এবং সোডিয়ামের পরিমান খুব কম থাকে। তেঁতো সব্জি আমাদের ত্বকের পক্ষে খুবই উপকারী। ত্বককে সুস্থ এবং সুন্দর রাখতে এর জুড়ি মেলা ভার। নার্ভাস সিস্টেমকে শক্তিশালী করতে, চোখ ভালো রাখতে এবং রক্ত যাতে জমাট না বাঁধে তা কার্যকরী করে তেঁতো সব্জি।

২) তেঁতো সব্জি আমাদের হজম শক্তি বাড়ায়। যে কোনও ধরনের খাবারই হজম করতে সাহায্য করে। এর মাধ্যমে আমাদের শরীরে হরমোনের ভারসাম্য বজায় থাকে, রক্ত পরিশুদ্ধ থাকে, কোলেস্টেরল আয়ত্বে থাকে, লিভার সুস্থ থাকে এবং শরীরে ফ্যাট জমতে দেয় না। এই কারণে ডায়েটে তেঁতো সব্জি থাকা খুব জরুরি।

৩) আমাদের জিভে বিভিন্ন স্বাদ গ্রহণের জন্য স্বাদকোরক থাকে। সেই সমস্ত স্বাদকোরকের জন্য আমরা মিষ্টি, নোনতা, তেঁতো, ঝাল, টক প্রভৃতি স্বাদ পাই। কিন্তু এই সমস্ত স্বাদকোরককে সঠিকভাবে স্বাদ গ্রহণের ক্ষমতা যোগায় তেঁতো খাবার। তেঁতো খেলে আমাদের খিদেও বাড়ে। আর ওজন কমানোর জন্য তেঁতো সব্জি খুবই উপকারী।

৪) লিভার পরিস্কার রাখে। লিভারের কর্মক্ষমতা বাড়ায়। টাইপ টু ডায়াবিটিসের হাত থেকে আমাদের রক্ষা করে। সুগার বা মধুমেহ রোগ প্রতিরোধ করে।

বিঃ দ্রঃ গুরুত্বপূর্ণ হেলথ নিউজ ,টিপস ,তথ্য এবং মজার মজার রেসিপি নিয়মিত আপনার ফেসবুক টাইমলাইনে পেতে লাইক দিন আমাদের ফ্যান পেজ বিডি হেলথ নিউজ এ ।

আরও পড়ুনঃ   একবার মাখলেই বয়স কমবে ১০ বছর !

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

16 − twelve =