জেনে নিন, গোলমরিচ সম্পর্কে অবাক করা সাতটি অজানা তথ্য

0
Peppercorn

চাইনিজ থেতে গিয়ে হোক, কিংবা ডিমসেদ্ধ, একটু গোলমরিচের গুঁড়ো ছড়িয়ে নিলে বেশ ভালই লাগে। অনেকে আবার মনে করেন, গোলমরিচ খেলেই বোধহয় পেট গরম করে। কিন্তু ‘অথুল্য আয়ুর্বেদিক মেডিকেল রিসার্চ কেন্দ্র’-এর মতে, শুধু স্বাদই নয়, গোলমরিচের কয়েকটি উপকারিতাও রয়েছে।

• গোলমরিচ পেটে হাইড্রোক্লোরিক অ্যাসিড ক্ষরণের মাত্রা বাড়ায়। তাই এটি হজমে সাহায্য করে। আর হজম ঠিক থাকলে কোষ্ঠকাঠিন্য, ডায়েরিয়ার মতো সমস্যাকে এড়ানো যায়।

পেটে গ্যাস হওয়া রুখতেও গোলমরিচের জুড়ি মেলা ভার।

• গোলমরিচ খেলে ঘাম বেশি হয়। ফলে শরীর থেকে অতিরিক্ত টক্সিন কমতে থাকে।
• গোটা মরিচের খোসা অতিরিক্ত মেদ ঝরাতে সাহায্য করে। ফলে গোলমরিচ দেওয়া খাবার খেলে কমতে থাকে শরীরের অতিরিক্ত মেদ।
• যাঁরা অতিরিক্ত মাত্রায় ধূমপান করেন, গোলমরিচ তেলের গন্ধ নিয়মিত সেবন করলে, বা সরাসরি ভাবে গোলমরিচ খেলে ধূমপানের অভ্যেস কমতে থাকে।

• ত্বকের রোগ থাকলে তার চিকিৎসাতেও কাজে লাগে গোলমরিচ। গোলমরিচ গুঁড়ো করে, স্ক্রাবার হিসেবে ব্যবহার করলে ত্বক থেকে মৃত কোষ দূর হয়। ফলে ত্বকে সহজে অক্সিজেন চলাচল করতে পারে। এছাড়া পিগমেন্টেশন ও অ্যাকনে দূর করতেও সাহায্য করে গোলমরিচ।

• নাক বন্ধ থাকা, হাঁপানি ইত্যাদি সারাতে সাহায্য করে গোলমরিচ। এক কাপ গরম জলে এক টেবিল চামচ গোলমরিচ এবং দুই টেবিল চামচ মধু দিয়ে খেলে শ্লেষ্মা দূর হয়।
• দাঁতে ক্যাভিটি বা ব্যথা থাকলে, গোলমরিচ সেই ব্যথা দূর করতে সাহায্য করে। -এবেলা

অনেকেই গোলমরিচ পছন্দ করেন না। কিন্তু এর অনেক ঔষধি গুণ আছে। আপনার প্রতিদিনের খাদ্য তালিকায় এটি যোগ করতে পারেন। গোলমরিচ আপনার শরীর ফিট রাখতে বেশ কার্যকর।

অনেকেই রান্নায় গোলমরিচ গুঁড়া ব্যবহার করেন। কিন্তু বিশেষজ্ঞরা বলেন, রান্নায় গোটা গোলমরিচ ব্যবহার করাই ভালো।

কফের চিকিৎসায় গোলমরিচ

একটি বাটিতে কিছু গোলমরিচ, জিরা ও বিট লবণ মিশিয়ে মুখে রাখুন। এটি খুশখুশে কাশি ও কফের চিকিৎসায় বেশ কার্যকর।

আরও পড়ুনঃ   আপনি জানেন কি পাঙ্গাস মাছ খেলে মরনব্যাধিসহ শরীরে ৬টি মারাত্মক রোগ হতে পারে ?

জ্বর থেকে পরিত্রাণ পেতে

একটি বাটিতে কিছু গোলমরিচ ও এক চা-চামচ চিনি নিন। সঙ্গে পানি যোগ করে খান। মিশ্রণটি আপনার জ্বর দূর করবে।

আপনি কি ঠাণ্ডায় ভুগছেন?

ঘরে বসেই দূর করুন ঠাণ্ডার সমস্যা। এক গ্লাস দুধের সঙ্গে কিছু গোলমরিচ ও জাফরান মিশিয়ে খান। এটি ইনফেকশনের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করে এবং ঠাণ্ডাজনিত সব সমস্যা দূর করে।

দাঁতের চিকিৎসায় গোলমরিচ

সকল ধরনের দাঁতের চিকিৎসায় গোলমরিচ বেশ কার্যকর। গোলমরিচ গুঁড়া করে দাঁতের মাড়ির ওপর কিছুক্ষণ রাখুন। এটি দাঁতের সমস্যা এবং নিঃশ্বাসে দুর্গন্ধ দূর করবে।

খাওয়ার রুচি বাড়াতে

যদি বলি গোলমরিচ গুঁড়া আপনার খাওয়ার রুচি বাড়াবে। তবে নিশ্চয়ই অবাক হবেন, তাই তো। তবে বলছি এক কাপ ঘন দুধের সঙ্গে কয়েকটা গোলমরিচ মিশিয়ে নিন। সপ্তাহে এটি দুবার করে খাবেন। এটি আপনার খাওয়ার রুচি বাড়াবে।

চোখের জন্য ভালো গোলমরিচ

এক গ্লাস দুধের সঙ্গে এক চা-চামচ গোলমরিচ গুঁড়া ও এক চা-চামচ মধু মিশিয়ে নিন। প্রতিদিন সকালে এটি খাবেন। এতে আপনার দৃষ্টিশক্তি ভালো হবে।

বদহজম সমস্যা দূর করতে

বদহজমের সমস্যা হচ্ছে? কোনো চিন্তা নেই। কয়েকটা গোলমরিচ চিবিয়ে অথবা পানি দিয়ে খেয়ে নিন। দেখবেন বদহজম সমস্যা দূর হয়ে যাবে।

ওজন হ্রাস করে

যে কোনো ধরনের গরম মশলা ওজন হ্রাস করে। যদি অতিরিক্ত ওজন হ্রাস করতে চান, তবে প্রতিদিনের খাদ্য তালিকায় গরম মশলা যোগ করুন।

ঠাণ্ডা এলার্জি দূর করতে

একটি পাত্রে পানি ফুটিয়ে তাতে কয়েকটা গোলমরিচ, সাদা গোলমরিচ, সামান্য চিনি ও আদা মেশান। গরম গরম খেলে ঠাণ্ডা সমস্যা দূর হবে। যদি না হয় তবে চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।

গোলমরিচ খুশকি দূর করে!

গরমের সময় খুশকির সমস্যা অনেক বেড়ে যায়। আর ঘামও অনেক বেশি হয়। এর ফলে চুল পড়তে শুরু করে। কয়েকটি প্রাকৃতিক উপাদান আছে যা সহজেই এই খুশকি সমস্যার সমাধান করে। জানতে চান সেগুলো কী কী? তাহলে বোল্ডস্কাই ওয়েবসাইটের লাইফস্টাইল বিভাগের এই তালিকা একবার দেখে নিন।

আরও পড়ুনঃ   স্বাস্থ্যকর উপায়ে মাংস রান্নার ১৪ টিপস

গোলমরিচ

প্রাকৃতিক এই উপাদান খুশকির উপাদান ধ্বংস করতে বেশ কার্যকর। এ ছাড়া এটি মাথার তালুর ব্রণও দূর করে।

যেভাবে ব্যবহার করবেন

দুই টেবিল চামচ গোলমরিচ ব্লেন্ডারে ভালো করে ব্লেন্ড করুন। পানির সঙ্গে মিশিয়ে মাথার তালুতে লাগান। ৩০ মিনিট অপেক্ষা করুন। এবার মাইল্ড শ্যাম্পু দিয়ে চুল ভালো করে ধুয়ে নিন।

ভিনেগার

ভিনেগার মাথার তালুতে অ্যান্টিঅক্সিডেন্টসের কাজ করে। এটি খুশকি দূর করার পাশাপাশি মাথার ত্বকের মরা কোষও দূর করে।

যেভাবে ব্যবহার করবেন

একটি কাপে দুই টেবিল চামচ ভিনেগার নিন। এবার একটি তুলার বলে ভিনেগার নিয়ে মাথার তালুতে লাগান। ৩০ মিনিট অপেক্ষা করুন। এবার মাইল্ড শ্যাম্পু দিয়ে চুল ধুয়ে ফেলুন।

নারকেল তেল ও লেবুর রস

লেবুর রসের প্রাকৃতিক এসিড খুশকির জীবাণু ধ্বংস করে। আর নারকেল তেল মাথার ত্বককে নরম রাখে।

যেভাবে ব্যবহার করবেন

দুই টেবিল চামচ নারকেল তেলের সঙ্গে কয়েক ফোটা লেবুর রস মিশিয়ে মাথার ত্বকে কিছুক্ষণ ম্যাসাজ করুন। ৩০ মিনিট অপেক্ষা করুন। এবার মাইল্ড শ্যাম্পু দিয়ে চুল ধুয়ে ফেলুন।

শরীরের মেদ কমাতে গোল মরিচ

গোল মরিচের ভেতর রয়েছে হাজারো গুণ। শরীরের মেদ ঝরাতে কত দৌড়ঝাঁপই না করেন সকলে। জানেন কী, এই গোলমরিচের মধ্যেই রয়েছে শরীরে মেদ কমানোর সেই আশ্চর্য ক্ষমতা। শুধু তাই নয়, সর্দি-কাশি থেকেও রক্ষা করে গোলমরিচ। এছাড়াও গোলমরিচের রয়েছে হাজারো গুণ। যা এককথায় বলা প্রায় অসম্ভব।

স্যুপ কিম্বা স্যালাড, সব কিছুতেই আছে গোলমরিচ। এর ঝাঁঝালো স্বাদ শরীর এবং মনকে করে তোলে সতেজ। ছোট্ট এই কালো দানার অসীম গুন। আমাদের আজকের এই প্রদিবেদন থেকে জেনে নিন, গোল মরিচের শারীরিক উপকারিতা সম্পর্কে বিস্তারিত-

১। শরীরের মেদ ঝরাতে সাহায্য করে।

২। অন্ত্রের হাইড্রোক্লোরিক অ্যাসিড নিঃসরণ বাড়িয়ে হজমে সাহায্য করে।

৩। কফ-ঠান্ডাজনিত সমস্যা দূর করে।

আরও পড়ুনঃ   নানা গুণে কদবেল

৪। ওজন কমানোর চিকিত্‍সায় ব্যবহার করা হয়।

৫। ক্যান্সার কোষের বৃদ্ধি ব্যাহত করে, ক্যান্সার প্রতিরোধ করে।

৬। প্রচুর অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট আছে, যা উচ্চচাপ নিয়ন্ত্রণ করে।

৭। গোলমরিচের তেল ব্যথা,যন্ত্রণা দূর করে।

৮। ব্রণ দূর করতে সাহায্য করে গোল মরিচ।

তাহলে বুঝতেই পারছেন ছোট্ট এই কালো দানার কি জাদুকরী ক্ষমতা রয়েছে। তাই দেরি না করে এখন থেকেই প্রতিদিনের খাদ্য তালিকায় রাখুন গোলমরিচ। যা আপনাকে রাখবে সতেজ ও সেই সঙ্গে নীরোগ। শরীর হবে মেদহীন ও ঝরঝরে।

বিনা খরচে এলার্জিকে গুডবাই জানান আজীবনের জন্য!

স্বাস্থ্য বিষয়ক আরও টিপস ,সংবাদ ও তথ্যের জন্য নিয়মিত ভিজিট করুন –BD Health

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

four × three =