ডাক্তার বলছেন হৃদরোগে দ্বিতীয় মত জরুরি?

0
68
হৃদরোগ

হার্ট অ্যাটাক হওয়া মানেই ওই ব্যক্তির যেকোনো মুহূর্তে প্রাণহানি হতে পারে। এ কারণে হার্ট অ্যাটাকের কথা শোনা মাত্রই অনেকে প্রচণ্ড ঘাবড়ে যান।

এ সম্পর্কে চিকিৎসকদের মতামত হচ্ছে, হঠাৎ করে হার্ট অ্যাটাক হলে ৩ ঘণ্টার মধ্যে অ্যাঞ্জিয়োপ্লাস্টি করা উচিত। তাতে হার্ট ভাল থাকে।

হার্ট অ্যাটাক হলে যদি পরীক্ষায় দেখা যায়, ধমনীতে এমন ব্লক হয়েছে, যা ফলে আক্রান্ত রোগীর প্রাণহানি হতে পারে, তখন বেলুন দিয়ে ব্লক খুলে দিতে হয়। পরে বাইপাস সার্জারি করতে হয়।

এ ব্যাপারে ভারতের দুর্গাপুরের বিধাননগরের একটি বেসরকারি হাসপাতালের চেয়ারম্যান তথা সিনিয়র কার্ডিয়াক সার্জন সত্যজিৎ বসু জানান, ‘হার্টের সমস্যায় ৫০ থেকে ৬০ শতাংশ ক্ষেত্রেই অ্যাঞ্জিওপ্লাস্টির প্রয়োজন পড়ে না। এজন্য রোগীদের দ্বিতীয় মতামত নেওয়া উচিত।’

তিনি আরো বলেন, হঠাৎ হার্ট অ্যাটাক হলে ২টি অ্যাসপিরিন এবং ৪টি ক্লোপিড্রোজেল ট্যাবলেট (৭৫ মিলি গ্রাম) খেয়ে নিয়ে ২ ঘণ্টার মধ্যে অ্যাঞ্জিওপ্লাস্টি করা যাবে, এমন হাসপাতালে পৌঁছে যাওয়া উচিত। তাহলে হার্টের পেশির ক্ষতির সম্ভাবনা কমে। তবে ডায়াবেটিক রোগীর ক্ষেত্রে ঝুঁকি নেয়া সঠিক নয়।

সার্জন সত্যজিৎ বসু এক্ষেত্রে আরো বলেন, ‘তবে রোগীর সব সময় বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ মেনে চলা উচিত।’

আরও পড়ুনঃ   স্মৃতিশক্তি বাড়াতে ও হৃদরোগের ঝুঁকি কমাতে যে ১২টি খাবার উপকারী

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

9 − 4 =