ন্যাশনাল হেল্প ডেস্কের ৯৯৯ নম্বর চালু

0
ন্যাশনাল হেল্প ডেস্ক

বিশ্বের উন্নত দেশগুলোর মতো নাগরিকদের জরুরি প্রয়োজনে তাৎক্ষণিক সহায়তা দিতে জাতীয় ন্যাশনাল হেল্প ডেস্ক (৯৯৯) সেবা সরকার পরীক্ষামূলকভাবে চালু করেছে।

সরকারের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ পরিচালিত একটি পাইলট কর্মসূচির আওতায় এ সেবা পরীক্ষামূলক কাঠামোর মাধ্যমে নাগরিকদের জরুরি প্রয়োজনে পুলিশ, ফায়ার সার্ভিস ও অ্যাম্বুলেন্স সার্ভিস দেওয়ার জন্য চালু হয়েছে।

বাংলাদেশ পুলিশ, ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স অধিদপ্তর এবং বেসরকারি প্রতিষ্ঠান প্লাস ওয়ানের সেবাসমূহের সমন্বয়ে এই কার্যক্রম পরিচালিত হবে।

জনগণের চাহিদা মোতাবেক এই সেবার সঙ্গে আরো নানা উদ্ভাবন যুক্ত করে আগামী বছরে ভয়েস সার্ভিসসহ তা পুরো উদ্যোমে চালু করা হবে।

সম্প্রতি ঢাকায় অনুষ্ঠিত ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড ২০১৬-এর সমাপনী অনুষ্ঠানে উন্মোচন করা হয় ন্যাশনাল হেল্পডেস্কের অ্যাপ ও ওয়েবসাইট।

বসুন্ধরা ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটিতে এই অ্যাপ ও ওয়েবসাইট উন্মোচন করেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত এবং তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

ন্যাশনাল হেল্পডেস্কের অ্যাপ ও ওয়েবসাইট উন্মোচন অনুষ্ঠানে প্রতিমন্ত্রী পলক বলেন, ‘ব্রিটিশরা ন্যাশনাল হেল্পডেস্ক চালু করেছে ১৯৩৭ সালে, যুক্তরাষ্ট্র চালু করেছে ১৯৬৮ সালে, আমরা করলাম ২০১৬ সালে। এই সেবা দেওয়ার জন্য বড় বড় শহরে আলাদা পুলিশ বাহিনীসহ বিভিন্ন সুবিধা যোগ করে এটিকে প্রাতিষ্ঠানিক রূপ দিয়েছে অনেক দেশ।’

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘বিলম্বে হলেও নাগরিকদের জরুরি সেবা প্রাপ্তির গুরুত্ব ও প্রয়োজনীয়তা বিবেচনা করেই আমরা টোল ফ্রি ৯৯৯ নম্বরটি চালু করেছি। এর ফলে জনগণের অতীব জরুরি সেবা প্রাপ্তি সহজতম হবে।’ এ উদ্যোগ ডিজিটাল বাংলাদেশের পথে আরো একধাপ অগ্রগতি বলেই তাঁর বিশ্বাস।

মোবাইল অ্যাপ ব্যবহার করে ৯৯৯ জরুরি সেবার কলসেন্টারে সরাসরি ফোন, লাইভ চ্যাট, বিভিন্ন তথ্য খোঁজার জন্য সার্চ অপশন ব্যবহার করতে পারবেন। এ ছাড়া এই অ্যাপ ও ওয়েবসাইটের মাধ্যমে জরুরি প্রয়োজনে জরুরি সেবার বিভিন্ন তথ্য লোকেশনসহ জানা যাবে। কল সেন্টারের মাধ্যমে শুধু জরুরি সেবা (আগামীতে ভয়েস কলের মাধ্যমে) পাওয়া গেলেও ৯৯৯ হেল্প ডেস্কের ডিজিটাল মাধ্যম মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন বা ওয়েবসাইটে (http://nhd.gov.bd/) জরুরি সেবা ছাড়াও সাধারণ সরকারি সেবা, জীবন ও জীবিকা বিষয়ক নানাবিধ তথ্য ও সেবা পাওয়া যাবে।

আরও পড়ুনঃ   রগে টান বা পেশীতে খিল ধরলে কী করবেন?

‘৯৯৯ হেল্পডেস্ক’ মোবাইল অ্যাপলিকেশন ব্যবহার করে গ্রাহক নিজের এবং নিকটবর্তী মানুষের জরুরি প্রয়োজনে কল সেন্টারে সরাসরি কথা বলতে পারবেন। কল সেন্টারের প্রশিক্ষিত এজেন্ট সেবা গ্রহীতার চাহিদা অনুযায়ী পুলিশ, ফায়ার সার্ভিস বিভাগের সাথে সংযোগ ঘটিয়ে দিবে এবং প্রয়োজনীয় মুহূর্তে নাগরিকদের অ্যাম্বুলেন্স সেবা প্রাপ্তিতে সহযোগিতা করবে। এ ছাড়া এই অ্যাপ ব্যবহার করে সরাসরি কন্টেন্ট এক্সপার্ট ও এজেন্টের সাথে লাইভ চ্যাটের সুবিধাও রয়েছে। জরুরি প্রয়োজনে পাওয়া যাবে প্রয়োজনীয় তথ্য ও পরামর্শ সেবা। এ ছাড়া কেউ চাইলে জরুরি প্রয়োজনে প্রয়োজনীয় সেবা প্রাপ্তি সম্পর্কে আগে থেকেই অবহিত হতে পারবেন। এই তথ্য প্রতিনিয়ত পরিমার্জন, পরিবর্ধন ও হালনাগাদ করা হবে। ৯৯৯ অ্যাপ ও ওয়েবসাইটে জরুরি বা সাধারণ সেবা সম্পর্কে যেকোনো তথ্য খোঁজার জন্য একটি শক্তিশালী সার্চ অপশন রয়েছে যা বাংলাদেশের সব সরকারি (.gov.bd) ওয়েবসাইট থেকে তথ্য খুঁজে পেতে সহায়তা করবে এবং এই অ্যাপের নিজস্ব কনটেন্ট ব্যাংক থেকে তথ্য প্রদর্শন করবে।

বর্তমানে সকাল ৭টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত এই পরীক্ষামূলক কার্যক্রম চালু রয়েছে যা আগামী সপ্তাহ থেকে ২৪ ঘণ্টায় চালু থাকবে। পরীক্ষামূলক অবস্থাতেই সীমিত আকারে পুলিশি সহায়তা, অ্যাম্বুলেন্স সহযোগিতা দেওয়া হচ্ছে, অনেকেই উপকৃতও হচ্ছে। আরো ছয় মাস এই কার্যক্রম পরীক্ষামূলকভাবে চলবে এবং আগামীতে ঢাকার বাইরেও এই কার্যক্রম বিস্তৃত করা হবে।

৯৯৯ হেল্পডেস্ক মোবাইল অ্যাপলিকেশন ডাউনলোড লিঙ্ক: http://bit.ly/2fqnhey

জরুরি প্রয়োজনে ৯৯৯ কল করুন

বিঃ দ্রঃ গুরুত্বপূর্ণ হেলথ নিউজ ,টিপস ,তথ্য এবং মজার মজার রেসিপি নিয়মিত আপনার ফেসবুক টাইমলাইনে পেতে লাইক দিন আমাদের ফ্যান পেজ বিডি হেলথ নিউজ এ ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

one + fourteen =