প্রতিদিনের কোন কোন খাবারে ছড়াচ্ছে মরণব্যাধি ক্যান্সার?

0
খাবারে ক্যান্সার

ইদানীং ক্যান্সারে আক্রান্তের হার আগের তুলনায় অনেক বেশি বেড়ে গেছে। প্রতিদিনই অসংখ্য মানুষ আক্রান্ত হচ্ছেন ক্যান্সারের মতো মরণব্যাধিতে।

মানবদেহ ক্যান্সার আক্রান্ত ও দেহে ক্যান্সারের কোষ বৃদ্ধির মূলে রোগী নিজেরাই দায়ী। দায়ী অসাবধানতা এবং অস্বাস্থ্যকর জীবনযাপন।

কিছু খাবার রয়েছে, যা  শুধুমাত্র মুখের স্বাদের কারণে জনপ্রিয়৷ অথচ এই খাবারগুলোই দিনের পর দিন  মৃত্যুমুখে ঠেলে দিচ্ছে। দেহে বাসা বাঁধছে এই মারাত্মক রোগটি।

জেনে নিন, যে খাবারগুলো প্রতিদিন বাড়াচ্ছে ক্যান্সারে আক্রান্তের ঝুঁকি-

ফাস্ট ফুড
যেসব খাবারে অ্যাক্রিলামাইড ও ট্রান্সফ্যাট থাকে, যেমন- আলুর তৈরি চিপস, ফ্রেঞ্চ ফ্রাই ইত্যাদি মানবদেহে ক্যান্সারের সৃষ্টি করে। যখন স্টার্চ জাতীয় খাবারকে তাপ দেওয়া হয় তখন এই ক্যান্সার কোষ বৃদ্ধিতে সহায়ক অ্যাক্রিলামাইড খাবারে তৈরি হয়। বেকড খাবার অনেক বেশি ক্ষতিকর মানবদেহের জন্য। এমনকি পাউরুটি টোস্ট করে খাওয়ার অভ্যাসও ক্যান্সারের ঝুঁকি সৃষ্টি করে।

স্মোকড খাবার
স্মোকড খাবার তৈরির প্রসেস করার সময় খাদ্যের ওপরে পলিসাইক্লিক অ্যারোমেটিক হাইড্রোকার্বনের সৃষ্টি হয় যা পাকস্থলীতে টিউমার হওয়ার জন্য দায়ী।

এর থেকে পাকস্থলী ক্যান্সারের ঝুঁকি বাড়ে।

প্রক্রিয়াজাত খাবার
যেসব খাবারে প্রিজারভেটিভ থাকে, সেই সমস্ত প্রক্রিয়াজাত খাবার দেহে ক্যান্সারের কোষ গঠনে সহায়তা করে থাকে। লাল মাংসের পাশাপাশি প্রক্রিয়াজাত মাংস যেমন বেকন, সসেজ ইত্যাদিও ক্যান্সারের ঝুঁকি বাড়ায়।

গ্রিল্ড মাংস
মাংস যখন গ্রিল করা হয় তখন মাংসের প্রাণিজ প্রোটিন ও ফ্যাট অনেক বেশি তাপের সংস্পর্শে আসে। এর থেকে মাংসে তৈরি করে হেটেরোসাইক্লিক অ্যামিন যা ক্যান্সার সৃষ্টির জন্য দায়ী। এতে করে কোলন ক্যান্সার হওয়ার সম্ভাবনা বাড়ে।

সফট ড্রিংকস
সোডা ও সফট ড্রিংকস জাতীয় খাবার যেগুলোতে অনেক বেশি পরিমাণে চিনি থাকে সে খাবারগুলো দেহে ক্যান্সারের কোষ বৃদ্ধিতে সহায়তা করে।

সিগারেট ও অ্যালকোহল
দীর্ঘ সময় ধরে সিগারেট খাওয়া ও অ্যালকোহল পানের অভ্যাস থাকলে দেহে এর থেকে ক্যান্সারের কোষ গঠন হয়। এই ক্ষেত্রে মৃত্যু ঝুঁকি অনেক বেশি বেড়ে যায়। সূত্র: ইন্টারনেট

আরও পড়ুনঃ   অস্থি ও অস্থিসন্ধির রোগ ও পরামর্শ

ক্যান্সার হতে বাঁচার উপায়

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

18 + 17 =