বদহজম থেকে চিরতরে মুক্তির জন্য যাদুকরী ঘরোয়া ওষুধ

0
বদহজম থেকে মুক্তি

সব সময় কেমন যেন মনে হয় বুকের কাছে কিছু একটা আটকে আছে। সেই সঙ্গে পেট ভার আর গুরুম গুরুম ঢেকুর।

আজকাল সবাই এত বেনিয়মে চলেন যে দশ জনের মধ্যে ৮ জনেরই এমন সমস্যা হয়, মানে বদ হজমে কাবু হয়ে পড়েন। শুধু কী তাই এমন রোগে তলপেটে যন্ত্রণা এবং অ্যাসিডিটির মতো লক্ষণও দেখা যায়।
তাই এখানে এমন একটি ওষুধের প্রসঙ্গে লেখা হল, যা খেলে কোনও দিন আর বদহজমে ভুগবেন না। বদহজম সংক্রান্ত শারীরিক অস্বস্তি থেকে বাঁচতে এক্ষুনি পড়ে ফেলুন লেখাটি।
প্রথমেই জেনে নিন বদ হজম কেন হয়। সাধারণত অস্বাস্থ্যকর খাবার খেলে, অতিরিক্ত ওজন, পাকস্থলির আলসার, কোষ্ঠ্যকাঠিন্য, আন্ডারলাইন ডিজিজ এবং কিছু ওষুধের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া প্রভৃতি নানা কারণে এই রোগ হতে পারে। আর যখন এমন সমস্যা দেখা দেয় তখন পেট গোলানো, তলপেটে যন্ত্রণা, বারংবার উইন্ড পাস, মাথা ঘোরা, বমি প্রভৃতি লক্ষণের বহিঃপ্রকাশ ঘটে থাকে।
ওষুধটি বানাতে যে যে উপকরণগুলি লাগবে:
১. আদা-মিশ্রিত পানীয়বিশেষ (যে কোনও দোকানে পেয়ে যাবেন)- হাফ কাপ
২. অ্যাপেল সিডার ভিনিগার- হাফ কাপ
প্রতিদিন এই ওষুধটি খাওয়ার পাশাপাশি যদি কেউ পুষ্টিকর খাবার খান, জাঙ্ক ফুড এড়িয়ে চলেন এবং নিয়মিত শরীরচর্চা করেন তাহলে বদ হজমের সমস্যা একেবারে সেরে যাবে। শুধু তাই নয় আর পুনরায় এমন রোগে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কাও কমে।
প্রসঙ্গত, আদায় আছে অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি উপাদান, যা পেটকে ঠাণ্ডা করে। সেই সঙ্গে নানাবিধ অ্যাসিডের কর্মক্ষমতা কমিয়ে বদহজমকে নিয়ন্ত্রণে নিয়ে আসে। অপরদিকে, অ্যাপেল সিডার ভিনিগার পাকস্থলিতে উৎপন্ন অতিরিক্ত অ্যাসিডের প্রভাবকে কমিয়ে বদহজম হওয়ার আশঙ্কা কমায়।
ওষুধটি বানানোর পদ্ধতি:
১. একটা কাপে পরিমাণ মতো দুটি উপকরণ মেশান।
২. ভাল করে মেশান দুটি উপকরণ।
৩. টানা দুমাস খাওয়ার পরে দিনে দুবার এই ওষুধটি খেলে দেখবেন আর বদ হজমের সমস্যা আপনাকে বিব্রত করবে না।

আরও পড়ুনঃ   ডায়াবেটিসের প্রাকৃতিক চিকিৎসা -ভেষজ চিকিৎসায় ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণ করুন

For more health tips please visit BD Health and like the page

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

5 × one =