বাত ব্যথা ও হৃদরোগ

0
বাত ব্যথা ও হৃদরোগ

বাত ব্যথা রোগ কী?

-কোন কোন রোগে শরীর বা গিরায় ব্যথা হতে পারে, এতে বাতব্যথা রোগ হয়।

কী কী কারণে বাতব্যথা রোগ হয়?

-সাধারণত বাতজ্বর ইউরিক এসিড বেশি হলে গিরা বাত থাকলে, অস্টি ও আর্থ্রাইটিস থাকলে, এনফাইলোসিংস্পন, ডাইলাইটিস থাকলে, এসএলই থাকলে বাতব্যথা রোগ হতে পারে।

বাতব্যথা রোগের সঙ্গে হৃদরোগের সম্পর্ক কী?

-কিছু কিছু বাতব্যথা রোগের কারণে হৃদরোগ হতে পারে, আবার বাতব্যথা রোগের চিকিৎসায় কিছু ওষুধের কারণেও হৃদরোগে হতে পারে। হৃদরোগের চিকিৎসায় ওষুধের কারণেও বাতব্যথা রোগ হতে পারে।

বাতজ্বর ও হৃদরোগের মধ্যে সম্পর্ক কি?

-বাতজ্বর, বাতব্যথা, গিরাব্যথা ও গিরা ফোলার সঙ্গে হৃদরোগও হতে পারে। যাকে কার্ডাইটিস বলে। এতে হৃদপিন্ডের ভাল্ব আক্রান্ত হতে পারে এবং ভাল্ব ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে ভাল্ব সরু হতে পারে বা ভাল্ব লিক হতে পারে। তাছাড়া হৃদপিন্ডের মাংসপেশী আক্রান্ত হয়ে হাট ফেইলর বা হৃদপিন্ডের চারপাশে পর্দা আক্রান্ত হয়ে পেরিকার্ডিয়াল ইফিউশন হতে পারে।

ইউরিক এসিড ও হৃদরোগের সম্পর্ক কী?

-ইউরিক এসিড বেশি থাকলে হৃদপিন্ডের করোনারি ধমনীতে চর্বির আস্তর জমে ভবিষ্যতে হার্টঅ্যাটাক বা অ্যাথেরোস্কেটিক হার্ট ডিজিজ হতে পারে। আবার হৃদরোগে ব্যবহৃত কিছু ওষুধ যেমন ডাইউরেটিকস যা শরীরের অতিরিক্ত পানি বের করা হয়, যেসব ওষুধ ইউরিক এসিড বাড়িয়ে দিতে পারে। যার ফলে শরীর ব্যথা ও গিরাফুলতে পারে।

গিরাবাত (রিউমার্টয়েড আর্থ্রাইটিস) ও হৃদরোগের সম্পর্ক কী?

-গিরা বাত বা রিউমাটয়েড আর্থ্রাইটিসে অনেক সময় হৃদপিন্ডের চারপাশে পানি জমতে পারে। তাছাড়া গিরাবাতে ব্যবহৃত ব্যথার ওষুধ যেমন : এনএসএআইডিতে শরীরে পানি আসতে পারে এবং বহুদিন ধরে এ জাতীয় ওষুধ ব্যবহার করলে ইসকেমিক হার্ট ডিজিজ জাতীয় হৃদরোগ হতে পারে, এমন কি কোন রোগীর হার্ট দুর্বল থাকলে এ জাতীয় ব্যথার ওষুধ ব্যবহার করে হার্ট ফেইলুর বা তীব্র শ্বাসকষ্ট হতে পারে।

কোন রোগীর হার্টের সমস্যা থাকলে ওষুধ সেবনে কী সতর্কতা অবলম্বন করা উচিত?

আরও পড়ুনঃ   গিটে বাত ও প্রতিকার

-কোন বাতব্যথা রোগীর হার্টের সমস্যা থাকলে ব্যথার ওষুধ সেবনে সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে। ডাইক্লোফেল, আহবু প্রোফিল, কিটোপ্রোফেল জাতীয় এনএসএআইডি ওষুধ খেলে হঠাৎ তীব্র শ্বাসকষ্ট হতে পারে, অর্থাৎ হঠাৎ হার্ট ফেইলুর হতে পারে। তাছাড়া এনএসএআইডি (নেনস্টেরয়ডাল এন্টি ইনক্লামেটরি) জাতীয় ড্রাসস দীর্ঘ সময় ব্যবহার করলে ইসকেমিক হার্ট ডিজিজ অর্থাৎ রক্তনালীতে ব্লক হতে পারে।

অস্টি ও আর্থ্রাইটিস রোগ বা বয়স্কজনিত বাতরোগের সঙ্গে হৃদরোগের সম্পর্ক কী?

-অস্টি ও আর্থ্রাইটিস বা বযস্কজনিত বাতরোগ যেহেতু বয়স্ক রোগীদের হয় এবং রক্তনালীর ব্লকজাতীয় হৃদরোগেও বয়স্ক রোগীদের বেশি হয়, সে ক্ষেত্রে বাতের চিকিৎসার জন্য ব্যথার ওষুধ সাবধানে খেতে হবে অথবা পরিহার করতে হবে অথবা হৃদরোগ নতুন করে হতে পারে বা হৃদরোগের মাত্রা বেশি হতে পারে।

সিস্টেমিক লুপাস ইরাই থেমাটোসাস (এসএলই(-এর সঙ্গে হৃদরোগের সম্পর্ক কী?

-এসএলইতে সাধারণ গিরাব্যথা ও গিরাফুলতে পারে। এছাড়া এসএলইতে চামড়ায় র‌্যাশের পাশাপাশি কিডনি, ব্রেন, ফুসফুস আক্রান্ত হতে পারে। এছাড়া এসএলইতে হৃদপিন্ডের চারপাশে পানি জমা ছাড়াও ইলেকট্রনিক লাইনে ব্লক হতে পারে।

বাতব্যথা ও হৃদরোগ থাকলে বাতব্যথা কমানোর জন্য ননস্টেরয়ডাল এন্ডি ইনফ্লামেটরি ড্রাগস (এনএসএআইডি)-এর ব্যবহার সাবধানে করা উচিৎ এবং প্রয়োজনে তা পরিহার করে অন্য গ্রুপের ওষুধ যেমন : প্যারাসিটামল বা ট্রমাডল জাতীয় ওষুধ ব্যবহার করা যেতে পারে, যা তুলনামূলকভাবে অনেক নিরাপদ।

ডা. মাহবুবুর রহমান বাবু, হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ, সহকারী অধ্যাপক, হৃদরোগ বিভাগ জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউট ও হাসপাতাল শেরে-বাংলানগর, চেম্বার : মুন ডায়াগনোস্টিক সেন্টার, খিলজী রোড, মোঃপুর, ঢাকা।

ডিপ্রেশন ও হৃদরোগ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

fifteen − fifteen =