বারবার কেন খাবেন বরবটি!

0
441
বরবটি

বরবটিকে ইংরেজিতে ইয়ার্ডলং বিন বলা হয়। অর্থ, এক ইয়ার্ড বা ৩৬ ইঞ্চি দীর্ঘ শিম। আদতে এত লম্বা বরবটির দেখা পেতে কপাল বেশ চওড়া হতে হবে। তবে শিম সবজির মধ্যে যে সবচেয়ে লম্বা তাতে সন্দেহ নেই কোনো। ভাজি-ভর্তা-তরকারি সবকিছুতেই সমান উপযোগী। পুষ্টিগুণেও সমৃদ্ধ।

বরবটির গুণাগুণ জানতে কথা হয় বারডেম জেনারেল হাসপাতালের জ্যেষ্ঠ পুষ্টিবিদ শামছুন্নাহার নাহিদের সঙ্গে। তিনি বলেন, ‘বরবটি আমিষসমৃদ্ধ একটি সবজি। বিশেষ করে যাদের মাছ-মাংস কেনার সামর্থ্য কম তাদের প্রোটিনের চাহিদা পূরণ করে বরবটি।’ তিনি আরও জানান, এতে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন ‘এ’ ও ‘সি’ এবং বিশেষ করে সবুজ বরবটিতে বেশ ভালো পরিমাণে ক্যালসিয়াম, ম্যাগনেশিয়াম, আয়রন ও পটাশিয়ামের মতো খনিজ আছে।

বরবটির অনেক গুণের কিছু এখানে দেওয়া হলো:
# বরবটির ফ্ল্যাভোনয়েড নামের অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট ক্যানসার কোষ বৃদ্ধি রোধে চমৎকার কাজ করে।
# এর ভিটামিন কে অস্টিওআর্থ্রাইটিস সমস্যা থেকে অস্থিসন্ধির সুরক্ষা নিশ্চিত করে।
# বরবটি আঁশসমৃদ্ধ খাদ্য। খাবার সহজে হজম করে। এ ছাড়া শরীরের ক্ষতিকারক কোলেস্টেরলের পরিমাণ কমিয়ে হার্টের সুস্বাস্থ্য নিশ্চিত করে। উচ্চ রক্তচাপ কমাতেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে বরবটি।
# বরবটির সিলিকন হাড়ের ঘনত্ব বৃদ্ধি করে। হাড় মজবুত করতে ক্যালসিয়ামের জুড়ি নেই। এর বীজে প্রচুর ক্যালসিয়াম থাকে।
# ভিটামিন ‘সি’ শরীরের প্রয়োজনীয় আয়রন পরিশোষণে ভূমিকা রাখে। কাঁচা বরবটিতে প্রচুর ভিটামিন ‘সি’ থাকে। আয়রনও থাকে বেশ। সুস্বাস্থ্য রক্ষায় সালাদের সঙ্গে তাই কাঁচা বরবটি খেতে পারেন।
# বরবটির অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট শরীর থেকে দূষিত যৌগগুলো বের করে। ফলে সহজে চর্বি জমতে পারে না। ক্যালরি ও কোলেস্টেরলের মাত্রা খুব কম হওয়ায় বেশি খেলেও সমস্যা নেই।

পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া:
বরবটির খারাপ দিক খুব কম। নেই বললেই চলে। তবে যাদের রক্তে চিনি অনেক বেশি তাদের বারবার না খাওয়াই ভালো। অন্যদিকে যাদের কিডনিতে ক্রিয়েটিনিনের সমস্যা এবং যাদের গেঁটে বাত আছে তাদের বরবটি পরিহার করাই উচিত।

আরও পড়ুনঃ   তেজপাতা ত্বক ও চুলের জন্য কতটা কার্যকর?

বিঃ দ্রঃ গুরুত্বপূর্ণ হেলথ নিউজ ,টিপস ,তথ্য এবং মজার মজার রেসিপি নিয়মিত আপনার ফেসবুক টাইমলাইনে পেতে লাইক দিন আমাদের ফ্যান পেজ বিডি হেলথ নিউজ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

19 − 10 =