যে ৭টি খাবার খেয়ে আপনার লিভারকে সুস্থ রাখতে পারেন

0
খাবার , লিভার সুস্থ

লিভার শরীরের গুরুত্বপূর্ণ একটি অঙ্গ এবং একজন প্রাপ্তবয়স্ক ব্যক্তির লিভারের ওজন ৩ পাউন্ড।দেহের এই লিভার অনেকগুলো গুরুত্বপূর্ণ কাজের সাথে জড়িত। যেমন- হজম শক্তি, মেটবলিজম, রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি, দেহে পুষ্টি যোগানো ইত্যাদি। সুস্থ লিভার দেহের রক্ত প্রবাহ নিয়ন্ত্রন করে, রক্ত থেকে ক্ষতিকর টক্সিন বের করে দেয়, দেহের সকল অংশে পুষ্টি যোগায়। এছাড়াও লিভার ভিটামিন, আয়রন এবং সাধারণ সুগার গ্লুকোজ সংরক্ষন করে। তাই লিভারের যে কোন ধরনের ক্ষতি শরীরের ওপর বেশ বাজে প্রভাব ফেলে ।

যেহেতু লিভার আমাদের দেহের গুরুত্বপূর্ণ একটি অংশ তাই যে কোন উপায়ে একে সুস্থ সবল রাখতে হবে। অস্বাস্থ্যকর জীবন যাপন দেহের লিভারের ওপর খারাপ প্রভাব ফেলে। ওজন বৃদ্ধি, হৃদরোগ, দীর্ঘ সময় ক্লান্তি অনুভব করা, হজমের সমস্যা, এলার্জি ইত্যাদি এই সমস্ত অসুখ দেখা দিতে পারে অসুস্থ লিভারের কারণে। তাই দেহ ও লিভার সুস্থ রাখার জন্য চিনে নিন এমন কিছু খাবার যা সুস্থ রাখবে আপনাকে। তবে কিছু খাবার রয়েছে যেগুলো লিভারকে ভালো রাখতে সাহায্য করে।

রসুন

লিভার পরিষ্কার রাখার জন্য উত্তম খাবার হল রসুন। রসুনের এনজাইম লিভারের ক্ষতিকর টক্সিক উপাদান পরিষ্কার করে। এতে আছে আছে আরও দুটি উপাদান যার নাম এলিসিন এবং সেলেনিয়াম যা লিভার পরিষ্কার রাখে এবং ক্ষতিকর টক্সিক উপাদান হতে রক্ষা করে।

  • ১। প্রতিদিন যে কোন সময় ২/৩ টি রসুনের কোয়া খেয়ে নিন।
  • ২। আপনি চাইলে ডাক্তারের পরামর্শ নিয়ে রসুন দিয়ে তৈরি ভিটামিনও খেতে পারেন।

লেবু

লেবুর অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট উপাদান দেহের লিভার পরিষ্কার রাখতে সাহায্য করে এবং ডি লিমনেন উপাদান লিভারে এনজাইম সক্রিয় করে। তাছাড়া লেবুর ভিটামিন সি লিভারে বেশি করে এনজাইম তৈরি করে যা হজম শক্তির জন্য উপযোগী। লেবুর মিনারেল লিভারের নানান পুষ্টি উপাদানগুলো শোষণ করার শক্তি বৃদ্ধি করে। বাসায় লেবুপানি পান করুন এবং যেকোন সময় পানের জন্য লেবুপানি বানিয়ে রাখুন। প্রতিদিন লেবুপানি পান করুন, চাইলে মধুও মিশিয়ে নিতে পারেন।

আরও পড়ুনঃ   ধূমপানে ক্ষতিগ্রস্ত ফুসফুস সারিয়ে তোলে আপেল-টমাটো: গবেষণা

আপেল

প্রতিদিন ১ টি করে আপেল খেলে তা লিভারকে সুস্থ রাখে। আপেলের পেক্টিন, ফাইবার দেহের পরিপাক নালী হতে টক্সিন ও রক্ত হতে কোলেস্টরোল দূর করে এবং সাথে সাথে লিভারকেও সুস্থ রাখে। আপেলে আছে আরও কিছু উপাদান- ম্যালিক এসিড যা প্রাকৃতিক ভাবেই রক্ত হতে ক্ষতিকর টক্সিন দূর করে। যেকোন ধরণের আপেলই দেহের লিভারের জন্য ভালো। তাই লিভার সুস্থ রাখতে প্রতিদিন ১ টি করে আপেল খান।

জলপাইয়ের তেল
জলপাইয়ের মধ্যে রয়েছে ভালো চর্বি। জলপাইয়ের তেল শরীরের বাজে কোলেস্টেরল কমায়; লিভারকে স্বাস্থ্যকর রাখে।

গ্রিন টি
গ্রিন টির মধ্যেও অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট উপাদান রয়েছে। এ ছাড়া গ্রিন টির মধ্যে রয়েছে ক্যাটাচিন; রয়েছে গুরুত্বপূর্ণ পলিফেনল। এটি লিভার থেকে বিষাক্ত পদার্থ দূর করে এবং লিভারকে স্বাস্থ্যকর রাখে।

হলুদ
হলুদের মধ্যে রয়েছে কারকিউমিন। এর মধ্যে আরো রয়েছে অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট, প্রদাহরোধী উপাদান ও অ্যান্টি ব্যাকটেরিয়াল উপাদান। হলুদ প্রদাহ রোধ করে এবং লিভারের রোগ প্রতিরোধে সাহায্য করে।

গাজর
গাজরের মধ্যে রয়েছে অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট। এ ছাড়া এর মধ্যে রয়েছে প্রয়োজনীয় ভিটামিন, মিনারেল ও ডায়াটারি আঁশ। এক গ্লাস গাজরের জুস ফ্যাটি অ্যাসিডকে দূর করতে সাহায্য করে এবং লিভার থেকে বিষাক্ত পদার্থ দূর করে।

লিভার সুস্থ রাখার উপায়

বিঃ দ্রঃ গুরুত্বপূর্ণ হেলথ নিউজ ,টিপস ,তথ্য এবং মজার মজার রেসিপি নিয়মিত আপনার ফেসবুক টাইমলাইনে পেতে লাইক দিন আমাদের ফ্যান পেজ বিডি হেলথ নিউজ এ ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

twenty − thirteen =