কেন প্রতিদিন লাল চা খাবেন?

0
লাল চায়ের উপকারিতা

লাল চা হয়তো অনেকেই পান করি। একটু আদা, একটু পুদিনা পাতা এর স্বাদ বাড়িয়ে দেয় কয়েক গুণ। সুন্দর গন্ধ আর রঙের জন্য লাল চা মানুষের কাছে প্রচলিত। তবে আপনি কি জানেন, প্রতিদিন লাল চা খাওয়া শরীরের জন্য উপকারী?

সকালে ঘুম থেকে উঠে চিনি ছাড়া লাল চা খেলে সারাদিনের এনার্জি পাবেন। আপনার শরীর হবে চাঙ্গা। এর কারণ হচ্ছে, লাল চায়ে আছে কার্বোহাইড্রেট, ক্যাফেইন, মিনারেল, ফ্লোরাইড, পটাশিয়াম, ম্যাঙ্গানিজ ও পলিফেনল।

এছাড়াও অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, এক্সাথিন, ট্যানিন, গুয়ানিন, পিউরিনে পরিপূর্ণ লাল চা। ফলে প্রতিদিন মাত্র ৩ কাপ লাল চা খান। এতেই যা হবার তাই হবে। বিশেষজ্ঞরা এমনটিই বলছেন। এখানেই লাল চায়ের কেরামতি শেষ নয়।

গবেষণা বলছে, প্রত্যেকদিন একবার লাল চা খেলে গ্লুকোমার মতো চোখের রোগে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি প্রায় ৭৫ ভাগ কমে যায়। আর এই গ্লুকোমা রোগে আক্রান্ত হলে চোখের মধ্যে চাপ বৃদ্ধিতে শুরু করে। এতে করে, অপটিক নার্ভ ক্ষতিগ্রস্ত হতে থাকে। পাশাপাশি দৃষ্টিশক্তি কমতে থাকে।

লাল চায়ের সঙ্গে দৃষ্টিশক্তির ভালো-মন্দ উভয় দিকের সরাসরি যোগসাজস রয়েছে। কারণ, লাল চায়ের নিউরো প্রোটেকটিভ কেমিক্যাল, অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, অ্যান্টিইনফ্লেমেটরি প্রপাটিজ চোখ ভালো রাখতে বহু গুণে সাহায্য করে।

উল্লেখ্য, এই লাল চা শুধু চোখই নয় চিনি ছাড়া লাল চা হজমশক্তিও বাড়ায়, ক্যানসার প্রতিরোধ করে, হার্ট চাঙ্গা রাখে, ব্রেনের ক্ষমতা বাড়ায়, রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়, ওজন কমায় লাল চা, স্নায়ু পদ্ধতিকে উদ্দীপ্ত করে, মুখের স্বাস্থ্য ভালো রাখে, হাড়কে শক্তিশালী করে, স্ট্রেস কমায়, ত্বকের সৌন্দর্য বাড়ায়।

লাল চায়ের মধ্যে পাওয়া যায় ক্যাফেইন, কার্বোহাইড্রেট, পটাশিয়াম, মিনারেল, ফ্লোরাইড, ম্যাঙ্গানিজ ও পলিফেনল। চা অ্যান্টিঅক্সিডেন্টের ভালো উৎস। ট্যানিন, গুয়ানিন, এক্সাথিন, পিউরিন ইত্যাদিকে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট বলা হয়।

লাল চায়ের মধ্যে রয়েছে অনেক স্বাস্থ্যকর গুণ। প্রতিদিন তিন কাপ লাল চা খেলে মনোযোগ বাড়ে। এর মধ্যে থাকা অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট সুরক্ষা দেয় বিভিন্ন রোগ থেকে।

আরও পড়ুনঃ   বাড়িতে যেভাবে চুলের তেল তৈরি করবেন

জীবনধারাবিষয়ক ওয়েবসাইট বোল্ডস্কাইয়ের স্বাস্থ্য বিভাগে প্রকাশিত এক প্রতিদিনে বলা হয়েছে লাল চা খাওয়ার আরও উপকারিতার কথা। চলুন, জেনে নিই সেসবের কথা।

হার্টের জন্য ভালো

গবেষণায় বলা হয়, লাল চা খাওয়া কার্ডিওভাসকুলার সমস্যা প্রতিরোধে সাহায্য করে। এর মধ্যে থাকা অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট ক্ষতিকর কোলেস্টেরলের জারিত হওয়া প্রতিরোধে কাজ করে। নিয়মিত লাল চা খেলে হৃৎপিণ্ড ভালো রাখে।

ক্যানসার প্রতিরোধে

লাল চায়ের মধ্যে থাকা অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট রেক্টাল, জরায়ুর ক্যানসার, ফুসফুস ও ব্লাডার ক্যানসার প্রতিরোধ করে। এটি স্তন ক্যানসার, প্রোস্টেট ক্যানসার ও পাকস্থলীর ক্যানসারও প্রতিরোধে কাজ করে।

রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়

লাল চা রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। এর মধ্যে থাকা ট্যানিন ফ্লু, ঠান্ডা, ইনফ্লুয়েঞ্জা আক্রমণ থেকে দেহকে সুরক্ষা দেয়। চার কাপ লাল চা প্রতিদিন গ্রহণ করলে প্রদাহ কমে।

মুখের স্বাস্থ্য ভালো রাখে

অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট মুখের ক্যানসার প্রতিরোধ করে। এর মধ্যে থাকা অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল উপাদান দাঁতের ক্ষয় তৈরিকারী ব্যাকটেরিয়া প্রতিরোধ করে। এ ছাড়া এর মধ্যে থাকা ফ্লোরাইড মুখের দুর্গন্ধ দূর করে।

মস্তিষ্ক ও স্নায়ু পদ্ধতিকে উদ্দীপ্ত করে

লাল চা রক্তের পরিবহনকে উন্নত করে। এটি মস্তিষ্ককে শিথিল করতে সাহায্য করে এবং কাজে মনোযোগ বাড়ায়। প্রতিদিন চার কাপ লাল চা খেলে মানসিক চাপ কমে।

হজম ভালো করে

এর মধ্যে থাকা ট্যানিন হজম প্রক্রিয়াকে সাহায্য করে। এটি অন্ত্রের সমস্যা এবং গ্যাস্ট্রিকের সমস্যার সঙ্গে লড়াই করে। লাল চা অন্ত্রের প্রদাহ প্রতিরোধেও কাজ করে।

-শাশ্বতী মাথিন

সুতরাং এখন থেকে চিনি ছাড়া লাল চা খান। কেননা, চিনি ছাড়া লাল চা খেলে আপনার চোখ ভালো থাকবে। বাড়বে দৃষ্টিশক্তিও।

চোখের সমস্যা দূর করে লাল চা!

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

one × four =